কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে নতুন ১০ জনের করোনা শনাক্ত, আক্রান্ত একজন ও সন্দেহজনক তিনজনের মৃত্যু


 কিশোরগঞ্জ নিউজ রিপোর্ট | ৪ মে ২০২১, মঙ্গলবার, ৭:২৮ | বিশেষ সংবাদ 


কিশোরগঞ্জে জেলার করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সর্বশেষ মঙ্গলবার (৪ মে) সন্ধ্যায় প্রকাশিত রিপোর্টে জেলায় মোট ১০ জন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর বিপরীতে করোনাভাইরাস মুক্ত হয়ে জেলায় এদিন সুস্থ হয়েছেন মোট ১৯ জন। এছাড়া করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে একজন মৃত্যুবরণ করেছেন।

এ পরিস্থিতিতে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বর্তমান রোগীর সংখ্যা কমেছে। আগের দিন সোমবার (৩ মে) জেলায় বর্তমান আক্রান্তের মোট সংখ্যা ছিল ৩২৮ জন। মঙ্গলবার (৪ মে) এই সংখ্যা কমে হয়েছে ৩১৮ জন।

অন্যদিকে সন্দেহজনক কোভিড-১৯ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

জেলায় নতুন করোনা শনাক্ত হওয়া ১০ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৩ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ১ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ৩ জন, ভৈরব উপজেলায় ২ জন এবং অষ্টগ্রাম উপজেলায় ১ জন শনাক্ত হয়েছে।

মোট ২০৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে এই ১০ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে।

কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজের আরটি-পিসিআর ল্যাবে হাসপাতালটির প্রি-আইসোলেশনে ভর্তিকৃত জরুরী রোগীসহ সোমবার (৩ মে) ও মঙ্গলবার (৪ মে) সংগৃহীত মোট ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৯ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে।

বাজিতপুরের জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আরটি-পিসিআর ল্যাবে সোমবার (৩ মে) মোট ৭০ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে।

নতুন সুস্থ হওয়া ১৯ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৬ জন, কুলিয়ারচর উপজেলার ২ জন, ভৈরব উপজেলার ৪ জন, ইটনা উপজেলার ১ জন এবং মিঠামইন উপজেলার ৬ জন রয়েছেন।

এছাড়া এই রিপোর্ট অনুযায়ী, কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে একজন মৃত্যুবরণ করেছেন। তিনি কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার বাসিন্দা ৭০ বছর বয়সী একজন পুরুষ।

করোনা শনাক্ত হওয়ার পর কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা গেছেন।

কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কোভিড ইউনিটে বর্তমানে আক্রান্ত ও সন্দেহজনক মোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৫০ জন যাদের মধ্যে ৪ জন আইসিইউতে রয়েছেন।
গত ২৪ ঘন্টায় ৪ জন নতুন ভর্তি হয়েছেন এবং ৫ জন ছাড়পত্র পেয়েছেন।

এছাড়া এই ২৪ ঘন্টায় হাসপাতালটিতে সন্দেহজনক কোভিড-১৯ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

এই সময় পর্যন্ত জেলায় মোট ৪৫৯৭ জন শনাক্ত, ৪২০১ জন সুস্থ এবং ৭৮ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

বর্তমানে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী ৩১৮ জন। তাদের মধ্যে ২৬ জন হাসপাতাল ও ২৯২ জন হোম আইসোলেশনে রয়েছেন।

শনাক্ত, সুস্থ ও মৃত্যু সব সূচকেই জেলার মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা শীর্ষে রয়েছে। এরপরেই রয়েছে ভৈরব উপজেলা।

বর্তমানে করোনা আক্রান্ত মোট ৩১৮ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ১২৬, হোসেনপুর উপজেলায় ২২ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ১০ জন, তাড়াইল উপজেলায় ৮ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলায় ২০ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ২৬ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ১৭ জন, ভৈরব উপজেলায় ৩৯ জন, নিকলী উপজেলায় ৭ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ২৫ জন, ইটনা উপজেলায় ১০ জন, মিঠামইন উপজেলায় ১ জন এবং অষ্টগ্রাম উপজেলায় ৭ জন রয়েছেন।

এদিকে গত ৭ ফেব্রুয়ারি ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর গত ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত মোট ৭৬ হাজার ৬৬৫ জন প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন। এরপর থেকে প্রথম ডোজ দেয়া আপাতত বন্ধ রয়েছে।

অন্যদিকে গত ৮ এপ্রিল থেকে এ পর্যন্ত মোট ৩৮ হাজার ৮১০ জন দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিয়েছেন।

গত ২৪ ঘন্টায় ৮১০ জন দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিয়েছেন।

কিশোরগঞ্জ জেলার সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান এসব তথ্য কিশোরগঞ্জ নিউজকে নিশ্চিত করেছেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর