কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কুলিয়ারচরে বিয়ের প্রলোভনে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ, বিয়ের দাবি করায় নির্যাতন


 মুহাম্মদ শাহ্ আলম, কুলিয়ারচর | ২ আগস্ট ২০২১, সোমবার, ৪:৩৮ | কুলিয়ারচর 



কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে প্রেমের অভিনয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠেছে। প্রেমিক বিয়েতে অস্বীকৃতি জানালে প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে ঘটনার বিবরণ দিলে উল্টো প্রেমিকের পরিবারের নির্যাতনের শিকার হয়েছে মাদ্রাসা ছাত্রী।

এ ঘটনায় মাদ্রাসা ছাত্রী বাদী হয়ে কুলিয়ারচর থানায় রোববার (১ আগস্ট) মামলা দায়ের করেছে। তবে অভিযুক্ত নাজমুল হাসান (২৪) কে এখনো গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

অভিযুক্ত নাজমুল হাসান কুলিয়ারচর উপজেলার উছমানপুর ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামের মো. কামাল মিয়ার ছেলে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, ৩/৪ মাস আগে নাজমুল হাসান প্রতিবেশী ওই মাদ্রাসা ছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। এক পর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মাদ্রাসা ছাত্রীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে।

কিন্তু সম্প্রতি নাজমুলকে মাদ্রাসা ছাত্রী বিয়ের জন্য চাপ দিলে নাজমুল বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়।

এ পরিস্থিতিতে শুক্রবার (২৯ জুলাই) মাদ্রাসা ছাত্রী প্রেমিক নাজমুলের বাড়ীতে গিয়ে তাঁর পরিবারের সদস্যদের কাছে ঘটনার বিস্তরিত খুলে বলে।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নাজমুলের পিতা কামাল মিয়া, মা ফাতেমা বেগম এবং দুই বোন চাঁদনী ও তাঁরা বেগম ওই মাদ্রাসা ছাত্রীকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও শারীরিক নির্যাতন করে।

এ ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করা হলে ভিডিওটি ভাইরাল হয়। এ নিয়ে তোলপাড় ও নিন্দার ঝড় উঠে।

নির্যাতিত মাদ্রাসা ছাত্রীকে উদ্ধার করে কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে দুইদিন চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় রোববার (১ আগস্ট) মাদ্রাসা ছাত্রী বাদী হয়ে নাজমুল হাসানকে আসামি করে কুলিয়ারচর থানায় মামলা (নং-১, তারিখ- ০১/০৮/২০২১ ইং) দায়ের করেছে।

এ ব্যাপারে কুলিয়ারচর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মিজানুর রহমান কিশোরগঞ্জ নিউজকে জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে। আসামি পলাতক রয়েছে, তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর