কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


যুব সমাজ কর্মে থাকলে মাদকাসক্ত ও অনৈতিক কাজে লিপ্ত হবে না: এমপি তৌফিক


 বিজয় কর রতন, মিঠামইন | ১৯ আগস্ট ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৭:০৭ | মিঠামইন 



যুব সমাজ কর্মে থাকলে মাদকাসক্ত ও অনৈতিক কাজে লিপ্ত হবে না বলে মন্তব্য করেছেন কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক। তিনি বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, প্রত্যেক ঘরে ঘরে বেকার যুবকদের চাকুরি দেয়া হবে।

আমার এলাকায় ৯০ ভাগ লোক এখনো গরিব রয়েছে। হাজার হাজার মণ বোরো ধান উৎপাদন হলেও প্রতিটি পরিবারে অনেক শিক্ষিত বেকার যুবক রয়েছে। বহু চেষ্টার পর মিঠামইনে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক বলেন, এবছরের মার্চ মাসে প্রথম ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির উদ্বোধন করেছিলাম। তিন মাসব্যাপী এ প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আজ সমাপনী অনুষ্ঠান। মিঠামইনে ৪৯৩ জন বেকার যুবক-যুবতীকে প্রশিক্ষণের আওতায় এনে দুই বছরের জন্য চাকুরির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ভবিষ্যতে যোগ্যতা অনুযায়ী ২ বছর পর স্থায়ী ভাবে চাকুরি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কারণ এটি প্রধানমন্ত্রীর একটি ভিশন যুবকরা যেন বেকার না থাকে।

তিনি প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, যাকে যে দপ্তরে দায়িত্ব দেয়া হয় সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে। কাজের মূল্যায়ন করতে হবে। কোন কাজই ছোট নয়। দেশের বাইরে গেলে প্রশিক্ষণ নিয়ে যেতে হবে। সেই ব্যবস্থাও মিঠামইনে করা হচ্ছে।

অনৈতিক কাজ থেকে বিরত থাকতে হবে। এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নিজেরা স্বাবলম্বী হও। কর্মসংস্থানের মাধ্যমে আমাদের বাচঁতে হবে। আমাদের দেশের যুবকরা প্রতিষ্ঠিত হোক এটা আমার কাম্য।

বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) মিঠামইনে ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির প্রশিক্ষণ সমাপনী উপলক্ষে আয়োজিত চেক বিতরণ ও সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক এসব কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ অডিটোরিয়ামে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর এ চেক বিতরণ ও সমাপনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রভাংশু সোম মহান।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে জেলা পরিষদের সদস্য সমীর কুমার বৈষ্ণব, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. শাহজাহান মিয়া, ভাইস চেয়ারম্যান মো. ইব্রাহিম মিয়া, মিঠামইন থানার ওসি মো. জাকির রব্বানী, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা ই আ ম মামুন মজুমদার, পরিসংখ্যান কর্মকর্তা শাহ মুহাম্মদ আমিন আহসান, প্রশিক্ষণার্থী হালিমা আক্তার ও খোকন মিয়া প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।


[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর