কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


দুর্গাপূজাকে ঘিরে কটিয়াদীতে ঐতিহ্যবাহী ঢাকের হাট


 মো. রফিকুল হায়দার টিটু, কটিয়াদী | ৯ অক্টোবর ২০২১, শনিবার, ৮:২০ | কটিয়াদী 



কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে রোববার (১০ অক্টোবর) থেকে শুরু হবে ঐতিহ্যবাহী ঢাকঢোলের হাট। প্রতি বছর দুর্গাপূজা উপলক্ষে উপজেলা সদরের পুরাতন বাজারে মুক্তিযোদ্ধা অফিস সংলগ্ন স্থানে বসে এই হাট।

করোনা মহামারির কারণে গত বছর ছিল না পূজার জাঁকজমক। ফলে ঢাক ঢোলের হাটেও ছিল না বাদ্যিযন্ত্রিদের সরব আনাগোনা।

এ বছর করোনা মহামারির প্রভাব থাকলেও সবকিছুই চলছে স্বাভাবিক গতিতে। পূজামণ্ডপগুলোও ইতিমধ্যে সুসজ্জিত হয়ে উঠেছে। লগ্ন শুরু হলেই ঢাক-ঢোলের তালে পূজারীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠবে পূজামণ্ডপগুলো।

তাই দূরদূরান্ত থেকে ঢাক ঢোল, সানাই, বাঁশি নিয়ে বাদ্যিযন্ত্রিদের আগমণ শুরু হয়ে গেছে।

রোববার (১০ অক্টোবর) ও সোমবার (১১ অক্টোবর) দুইদিনের এই হাট থেকে পূজা শুরু থেকে বিসর্জন পর্যন্ত পূজার কার্যাদি সম্পন্ন করে দেয়ার শর্তে আয়োজকগণ তাদের পছন্দমত বাদ্যিযন্ত্রিদের ভাড়ায় নিয়ে যাবেন।

সাধারণত একটি ঢাক ১২ থেকে ১৫ হাজার, ঢোল ১০-১২ হাজার, বাঁশি প্রকারভেদে ১০ থেকে ২০ হাজার, ‘ব্যান্ডপার্টি’ ছোট ৩০ হাজার থেকে ৫০ হাজার এবং বড় ৬০ হাজার থেকে এক লাখ টাকা পর্যন্ত ভাড়া হয়।

দেশের আর কোথাও এ ধরণের বাদ্যযন্ত্রের হাট আছে বলে জানা নেই। প্রায় ৫শ’ বছরের ঐতিহ্যবাহী এই হাট সম্পর্কে দেশের প্রায় সর্বত্রই সুনাম রয়েছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পূজার আয়োজকগণ ভাল মানের বাদক নিতে ছুটে আসেন এই হাটে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যোতিশ্বর পাল বলেন, পূজা আয়োজক ও আগত বাদ্যিযন্ত্রিদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দেয়া হয়েছে এবং তাদের নিরাপত্তার জন্য কটিয়াদী মডেল থানার ওসি এসএম শাহাদত হোসেন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। এছাড়া উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও তদারকি করা হবে।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. মোহাম্মদ মুশতাকুর রহমান বলেন, পাঁচশত বছরের ঐতিহ্যবাহী ঢাকের হাট কটিয়াদী উপজেলার ঐতিহ্য ধরে রেখেছে। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা স্বাস্থ্যবিধি মেনে উদযাপনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।


[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর