kishoreganjnews.com:কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা

দেশকে এগিয়ে নেয়ার জন্য দরকার তরুণ নেতৃত্ব



 আনিছুর রহমান লিটন | ২১ জানুয়ারি ২০১৮, রবিবার, ১১:৫৮ | মত-দ্বিমত 


৫২’র ভাষা আন্দোলন, ৬৯’র গণ-অভ্যুত্থান ও সর্বোপরি আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে তরুণদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ও নেতৃত্বের ভূমিকা ছিল গুরুত্বপূর্ণ। যুগে যুগে তরুণেরা পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে তাদের নেতৃত্বের গুণে ইতিবাচক পরিবর্তনের সূচনা করেছে। তরুণদের চেতনায় রাজনীতিতে পরমতসহিষ্ণুতা, সহনশীলতা জাতির ভিত্তি। হোক সেটা জাতীয়, আন্তর্জাতিক, অর্থনীতি, পররাষ্ট্রনীতি কিংবা অন্য কোনো বিষয়ে।

রাজনীতিতে নীতিহীনতা, গণতান্ত্রিক চর্চার অভাব, ক্ষমতার অপব্যবহার, কালো টাকার প্রভাব, দুর্নীতিবাজদের প্রশ্রয়, সহনশীলতার অভাব ও ধ্বংসাত্মক কার্যকলাপ এসব কিছু বন্ধ বা ধ্বংস করতে পারে তরুণ নেতৃত্বগুণ। রাজনীতিতে গুণগত ও ইতিবাচক পরিবর্তনে এবং দেশের মানুষের আশা-আকাঙ্খা অর্জনে এখন তরুণ নেতৃত্ব আবশ্যক হয়ে দাঁড়িয়েছে। তরুণেরা এখন ভবিষ্যৎ নয়, তরুণেরা জাতির বর্তমান হতে চায়। এখন তারা দেশের জন্য কিছু করতে চায়।

এই তরুণদের হাত ধরে স্বৈরাচার পতনের ডাক এসেছিল। এই তরুণ-তরুণীরা শাহবাগে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ঐক্যের সূচনা করেছিল। রাজনীতি হলো প্রবহমান নদীর মতো। ভালো মানুষ বা তরুণ নেতৃত্ব না এলে রাজনীতির জায়গা ফাঁকা থাকবে না। খারাপ নেতৃত্বের দ্বারা তা পূর্ণ হয়ে যাবে। তাই বঙ্গবন্ধু ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তরুণদের দলে টেনে সুযোগ করে দিচ্ছেন। যেন মানুষের কল্যাণে দেশ নির্মাণে ভুমিকা রাখতে পারে। তাঁদের মতোও তৃণমূল পর্যায় সমান সুযোগ করে দিতে হবে তবেই আমরা স্বপ্ন নয় বাস্তবায়ন হবে সুন্দর সম্ভবনা ।

রাজনীতিতে আকৃষ্ট করার মতো তরুণ-তরুণীদের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে ‘রোল মডেল’ তৈরি করেছেন তৃণমূল ও জনগণ তা স্বাগত জানিয়ে গ্রহণ করা অব্যশক। আর যদি তরুণদের নানা কর্মকাণ্ডের সাথে যুক্ত হতে না দেওয়া হয় আগামি সৎ নেতৃত্বের সংকটময় অবস্থায় অসাধুদের দখলে চলে যাবে। শাসকগোষ্ঠীরা বা কিছু নীতিনির্ধারকেরা চায় না এ দেশের শিক্ষিত তরুণ-তরুণীরা রাজনীতিতে আসুক! কেননা পরিবর্তনকে অনেকে ভয় পায়।

দিন দিন রাজনীতি ব্যবসায়ীদের হাতে চলে যাচ্ছে। স্বার্থের রাজনীতি দৃশ্যমান। কিন্তু বাস্তবতা হলো, সমাজ যখন রাজনৈতিকভাবে অসচেতন হয়, তখন তা সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য কখনো শুভ হতে পারে না। এই তরুণদেরকেই এখন সব অন্যায়ের প্রতিবাদ ও মুক্তিযুদ্ধের শক্তির পক্ষে অবস্থান নিয়ে কাজ করতে হবে। সংস্কৃতির বিকাশ সাধন এবং উন্নয়ন স্থায়ী করতে হলে রাজনীতিতে তরুণদের সম্পৃক্ত করতে হবে। আর এ দায়িত্ব সকলকেই নিতে হবে।

দার্শনিক জর্জ বার্নাড শ-এর কথাতে বলতে হয়, ‘নতুন কিছু করাই তরুণদের ধর্ম।’ সত্যিই তরুণ মেধাবীরা রাজনীতিতে না আসলে রাজনীতি মেধাশূন্য হয়ে যাবে। কল্যাণকর রাজনীতির চর্চায় তরুণেরা নেতৃত্ব দিতে চায়। একটি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গঠন ও কার্যকর গণতন্ত্রের ভিত্তি মজবুত করতে হলে এবং রাজনীতিতে ইতিবাচক ও যোগ্য নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠায় তরুণ নেতৃত্বের অংশ নেয়া সবার আগে জরুরি।

আসুন করিমগঞ্জ-তাড়াইলে বঙ্গবন্ধু ও জননেত্রী শেখ হাসিনার রোল মডেল অনুসরণ করে তরুণ নেতৃত্ব সৎ শিক্ষিত মেধাবী নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহফুজুল হক হায়দার এর নেতৃত্বগুণ দ্বারা স্বপ্ন নয় বাস্তবায়নে এগিয়ে চলি আগামি উন্নয়নের ধারাবাহিতায়। জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]


এ বিভাগের আরও খবর














সেগুনবাগিচা, গৌরাঙ্গবাজার, কিশোরগঞ্জ-২৩০০
মোবাইল:০ ১৮১৯ ৮৯১০৮৮, ০১৮৪১ ৮১৫৫০০
kishoreganjnews247@gmail.com
Web: www. kishoreganjnews.com
প্রধান সম্পাদক: আশরাফুল ইসলাম
সম্পাদক: সিম্মী আহাম্মেদ