কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে বেপরোয়া বাস কেড়ে নিলো তিন বন্ধুর প্রাণ, এলাকায় মাতম


 বিশেষ প্রতিনিধি | ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, রবিবার, ৭:৩৭ | কিশোরগঞ্জ সদর 


কিশোরগঞ্জে তিন কিশোর বন্ধু মিলে মোটর সাইকেলে ঘুরতে বেরিয়ে বেপরোয়া বাসের চাপায় প্রাণ হারিয়েছে। নিহত তিন কিশোরের মধ্যে এক কিশোর দাখিল পরীক্ষার্থী এবং আরেক কিশোর এবার জেডিসি পরীক্ষা দিয়েছে।

রোববার (১৬ ডিসেম্বর) দুপুরের এই দুর্ঘটনায় পাশাপাশি তিন গ্রামের তিন বন্ধুর মর্মান্তিক মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। আদরের সন্তানদের হারিয়ে মাতম চলছে পরিবারগুলোতে।

নিহত তিন কিশোরের নাম, শান সৈকত (১৬), জাহিদুল হাসান শুভ (১৪) ও মিলন মিয়া (১৬)। তাদের মধ্যে শান সৈকত কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার মারিয়া ইউনিয়নের প্যারাভাঙ্গা গ্রামের হেলাল উদ্দিনের ছেলে, জাহিদুল হাসান শুভ পার্শ্ববর্তী ঝাটাশিরা গ্রামের মৃত বাবুল মিয়ার ছেলে এবং মিলন মিয়া পাশের পাঠানকান্দি গ্রামের আবুবাক্কার মিয়ার ছেলে।

শান সৈকতের স্থানীয় ঝাটাশিরা জিএ দাখিল মাদরাসার শিক্ষার্থী হিসেবে এবার দাখিল পরীক্ষা দেয়ার কথা ছিল। জাহিদুল হাসান শুভ একই মাদরাসা থেকে এবার জেডিসি পরীক্ষা দিয়েছিল। এছাড়া মিলন মিয়া একটি মোটর গ্যারেজে কাজ করতো।

স্বজনেরা জানান, রোববার (১৬ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে মিলন তার ভগ্নিপতির মোটর সাইকেল নিয়ে দুই বন্ধু শান সৈকত ও জাহিদুল হাসান শুভকে সঙ্গী করে ঘুরতে বেরিয়েছিল। কিছুক্ষণ মোটর সাইকেলে ঘোরাঘুরির পর কিশোরগঞ্জ শহরতলীর বড়পুল এলাকা থেকে কিশোরগঞ্জ-ভৈরব মহাসড়ক ধরে বাড়ি ফিরছিল তারা।

দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বাড়ির কাছাকাছি কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার রশিদাবাদ মধ্যপাড়া বেইলী ব্রিজ এলাকায় পৌঁছামাত্রই বিপরীত দিক থেকে আসা অনন্যা ক্লাসিক পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস বেপরোয়া গতিতে মোটর সাইকেলটিকে চাপা দেয়।

এতে মোটর সাইকেলটি দুমড়ে-মুচড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারায় সৈকত ও মিলন। মুমূর্ষু অবস্থায় শুভকে উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে-ও মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।

অকালে তিন কিশোরের এমন মর্মান্তিক মৃত্যুতে পাশাপাশি তিন গ্রাম প্যারাভাঙ্গা, ঝাটাশিরা ও পাঠানকান্দিসহ আশপাশের এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। তিন গ্রামের নিহত তিন কিশোরের বাড়ি অভিমুখে নামে শোকার্ত মানুষের ঢল। পরিবারগুলোতে চলে মাতম। লাশকে ঘিরে স্বজনদের আহাজারিতে ভারি হয়ে ওঠে এলাকার পরিবেশ। বিকালে নিহতদের বাড়িতে গেলে এমন শোকাবহ চিত্রই মিলে নিহতদের বাড়িতে বাড়িতে।

স্বজনেরা জানান, বন্ধু অন্তপ্রাণ ছিলো তিন কিশোরই। এক সাথে ঘুরতে গিয়ে এক সাথেই যে তারা এভাবে পৃথিবীকে বিদায় জানাবে, কারো চিন্তাতেই আসেনি।

ভিডিও:



[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর