কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


১১৮ উপজেলা পরিষদে ভোটযুদ্ধ আজ, থাকছে সেনাবাহিনীও


 জাহাঙ্গীর কিরণ, ঢাকা থেকে | ২৪ মার্চ ২০১৯, রবিবার, ১২:৪৩ | জাতীয় 


চলমান পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপের ভোটগ্রহণ হবে আজ রোববার (২৪ মার্চ)। সাত বিভাগের ২৫ জেলার ১২৭টি উপজেলায় এই ধাপে ভোট হওয়ার কথা থাকলেও নানা কারণে ৯টি উপজেলায় ভোট হচ্ছে না। যে কারণে প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে হওয়া চেয়ারম্যান ছাড়াও ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে এই ধাপে ভোট হচ্ছে ১১৮ উপজেলায়।

এই ধাপেই প্রথমবারের মতো চার উপজেলায় ইভিএমে ভোটগ্রহণ করার সিদ্ধান্ত রয়েছে নির্বাচন কমিশনের (ইসি)। ভোট উপলে সংশ্লিষ্ট এলাকায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রায় পুলিশ র‌্যাব, আনসার, এপিবিএন পাশাপাশি বিডিআর ও সেনাবাহিনীও মোতায়েন করা হয়েছে।

ইসি সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, তৃতীয় ধাপের এই ভোটগ্রহণ সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে টানা  বিকেল চারটা পর্যন্ত চলবে। ১১৮টি উপজেলায় ১ হাজার ৩৭৬ জন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৩৫৮ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬০৪ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪১৪ জন।

এসব উপজেলায় মোট ভোটার ২ কোটি ৪৭ লাখ ৫৩ হাজার ১৪৮ জন। কেন্দ্র সংখ্যা ১০ হাজার ১৮টি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে নির্বাচনের আগের দুই দিন, নির্বাচনের দিন এবং নির্বাচনের পরের দুই দিনসহ মোট পাঁচদিন নির্বাচনী এলাকায় অতিরিক্ত আইনশৃঙ্খলাবাহিনী মোতায়েন থাকছে। নির্বাচনের দিন প্রতিটি সাধারণ কেন্দ্রে ১৪ জন এবং ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ১৬ জন করে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্য মোতায়েন থাকবে। নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে ইতিমধ্যে কমিশন থেকে বেশ কিছু দৃশ্যমান পদপে নিয়েছে ইসি।

চার উপজেলায় ইভিএম
প্রথমবার তৃতীয় ধাপের চার উপজেলায় ইভিএম ব্যবহার করা হচ্ছে। উপজেলা চারটি হলো- মেহেরপুর সদরের ৭৭ নম্বর কেন্দ্র, মানিকগঞ্জ সদরের ১০২ নম্বর কেন্দ্র, গোপালগঞ্জ সদরের ১১৪ নম্বরকেন্দ্র এবং রংপুর সদরের ৪৭ নম্বর  কেন্দ্র। এসব উপজেলার কেন্দ্রে ট্যাব ব্যবহার করে সফটওয়্যারের মাধ্যমে ভোটকেন্দ্রের সার্বিক নজরদারি রাখা হবে।

ট্যাব ব্যবহার সংক্রান্ত ইসির পরিপত্রে উল্লেখ করা হয়, পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে চারটি ও চতুর্থ ধাপে ছয়টি উপজেলার সবগুলো কেন্দ্রে ট্যাব ব্যবহার করে সফটওয়্যারের মাধ্যমে ভোটকেন্দ্রে সার্বিক সচিত্র প্রতিবেদন নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হবে। এছাড়া ভোট গণনা শেষে ফলাফলও পাঠানো হবে ট্যাবের মাধ্যমে।

এছাড়া ইভিএম সংক্রান্ত পরিপত্রে বলা হয়, ভোটগ্রহণ চলাকালে ইভিএম মেশিনের কোনো সমস্যা দেখা দিলে বা মেশিন প্রতিস্থাপনের প্রয়োজন হলে নির্বাচন কমিশনের নিযুক্ত কারিগরি সদস্যরা তা সচল বা প্রতিস্থাপনের ব্যবস্থা করবেন।

ট্যাবে প্রতিবেদন ও ফলাফল এন্ট্রি সংক্রান্ত কোনো সমস্যার সম্মুখীন হলে কারিগরি সদস্যরা প্রিজাইডিং অফিসারকে সহায়তা দেবেন। ভোটকেন্দ্রের অভ্যন্তরে নিয়োজিত কারিগরি সদস্যরা মোবাইল টিম/কন্ট্রোল রুমের সঙ্গে সার্বণিক যোগাযোগ রাখার জন্য ফোন বহন ও ব্যবহার করতে পারবেন। ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ইভিএমের মাধ্যমে প্রাপ্ত ফলাফল কেন্দ্র থেকে ট্যাবের মাধ্যমে পাঠানো নিশ্চিত করতে হবে।

যেসব উপজেলায় আজ ভোট
রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের ৫ উপজেলায় ভোট হবে আজ। এগুলো হচ্ছে- চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ভোলাহাট, গোমস্তাপুর, নাচোল ও শিবগঞ্জ উপজেলা। রংপুর বিভাগের রংপুর জেলার মিঠাপুকুর উপজেলা।

খুলনা বিভাগে ভোট হবে ৩০ উপজেলায়। এগুলো হচ্ছে- চুয়াডাঙ্গা জেলার চুয়াডাঙ্গা সদর, আলমডাঙ্গা, দামুড়হুদা ও জীবননগর উপজেলা; মাগুরা জেলার মাগুড়া সদর, শ্রীপুর, শালিখা, মহম্মদপুর, নড়াইল জেলার নড়াইল সদর, কালিয়া, সাতীরার জেলার সদর উপজেলা, আশাশুনি, শ্যামনগর, কালীগঞ্জ, কালারোয়া, তালা ও দেবহাটা, কুষ্টিয়া সদর উপজেলা, ভেড়ামারা, কুমারখালী, মিরপুর, খোকসা ও দৌলতপুর উপজেলা, মেহেরপুর জেলার মুজিবনগর, গাংনী, ঝিনাইদহ জেলার সদর উপজেলা, শৈলকুপা, হরিণাকু-ু ও কালীগঞ্জ।

বরিশাল বিভাগে ভোট হবে ১২ উপজেলায়। এগুলো হচ্ছে- বরিশাল জেলার সদর উপজেলা, বাকেরগঞ্জ, বাবুগঞ্জ, বানারীপাড়া, উজিরপুর, মুলাদী ও হিজলা উপজেলা। ঝালকাঠি জেলার সদর উপজেলা, নলছিটি, রাজাপুর ও কাঁঠালিয়া উপজেলা, ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলা।

ময়মনসিংহ বিভাগের ৩ উপজেলায় ভোট হবে। এগুলো হচ্ছে- শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ী, শ্রীবরদী ও ঝিনাইগাতী উপজেলা।

ঢাকা বিভাগের ৪৫ উপজেলায় আজ ভোট হবে। এগুলো হচ্ছে- মাদারীপুর জেলার কালকিনি ও রাজৈর, শরীয়তপুর সদর উপজেলা, জাজিরা, নড়িয়া, ভেদরগঞ্জ, ডামুড্যা ও গোসাইরঘাট। গোপালগঞ্জ সদর, টুঙ্গীপাড়া, কোটালীপাড়া, কাশিয়ানী ও মুকসুদপুর উপজেলা; রাজবাড়ী জেলার সদর উপজেলা, গোয়ালন্দ, পাংশা ও বালিয়াকান্দি; মানিকগঞ্জ জেলার সদর উপজেলা, দৌলতপুর, ঘিওর, শিবালয়, সিংগাইর, হরিরামপুর ও সাটুরিয়া উপজেলা, নরসিংদীর পলাশ, শিবপুর, মনোহরদী, বেলাব ও রায়পুরা উপজেলা। কিশোরগঞ্জ জেলার সদর উপজেলা, হোসেনপুর, কটিয়াদী, পাকুন্দিয়া, তাড়াইল, করিমগঞ্জ, ইটনা, মিঠামইন, অষ্টগ্রাম, নিকলী, বাজিতপুর, কুলিয়ারচর ও ভৈরব উপজেলা।

এছাড়া চট্টগ্রাম বিভাগের ২৩ উপজেলায় ভোট হবে আজ। এগুলো হচ্ছে- চাঁদপুর জেলার চাদঁপুর সদর, কচুয়া, মতলব উত্তর, মতলব দণি, ফরিদগঞ্জ, হাজীগঞ্জ ও শাহরাস্তি উপজেলা; লক্ষ্মীপুরের সদর উপজেলা, রামগঞ্জ, রায়পুর, কমলনগর ও রামগতি উপজেলা; চট্টগ্রাম জেলার বোয়ালখালী, পটিয়া, আনোয়ারা, চন্দনাইশ, লোহাগাড়া ও বাঁশখালী উপজেলা এবং কক্সবাজার জেলার সদর উপজেলা, পেকুয়া, কুতুবদিয়া, মহেশখালী, রামু, উখিয়া ও টেকনাফ।

ভোট হচ্ছে না ৯ উপজেলায়
তৃতীয় ধাপে ১২৭টি উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হলেও নির্বাচন হচ্ছে ১১৮টি উপজেলায়। এর মধ্যে কক্সবাজার সদর ও নরসিংদী সদর উপজেলার নির্বাচন তৃতীয় ধাপ থেকে পিছিয়ে চতুর্থ ধাপে নেয়া হয়েছে।

কুতুবদিয়া এবং লোহাগড়া উপজেলার নির্বাচন স্থগিত করেছে আদালত। অন্যদিকে তৃতীয় ধাপের ৫টি উপজেলায় (বরিশালের গৌরনদী, আগৈলঝড়া, নরসিংদীর পলাশ, চট্টগ্রামের আনোয়ারা ও মাদারিপুরের শিবচর) সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় এসব উপজেলায় নির্বাচনের কোনো প্রয়োজন হয়নি।

উল্লেখ্য, পঞ্চম উপজেলা নির্বাচন পাচঁ ধাপে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এরইমধ্যে প্রথম ধাপে ১০ মার্চ ৭৮ উপজেলায়, দ্বিতীয় ধাপে ১৮ মার্চ ১১৬ উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ তৃতীয় ধাপে ১১৮ উপজেলায় এবং ৩১ মার্চ চতুর্থ ধাপে ১২২ উপজেলায় এবং আগামী ১৮ জুন পঞ্চম ধাপের ২১ উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এ সংক্রান্ত সংবাদ: কিশোরগঞ্জের ১৩ উপজেলায় রোববারের ভোটে লড়ছেন ১৭৫ প্রার্থী




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর