কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


পৌনে দু’শো বছর ধরে দুর্গাপূজা হয় যে বাড়িতে


 স্টাফ রিপোর্টার | ৬ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ৮:৩৬ | পাকুন্দিয়া  


প্রায় পৌনে দু’শো বছর ধরে একটানা দুর্গাপূজা আয়োজন করা হচ্ছে কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের ধর্ম নারায়ন সাহার বাড়িতে। বংশ পরম্পরায় এই বাড়িতে সুদীর্ঘ এই সময় ধরে দুর্গাপূজার আয়োজন করা হচ্ছে। কেবল ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের বছরে এখানে হয়নি দুর্গাপূজার আয়োজন।

পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, ১৯৭১ সালে আলবদর রাজাকার আর পাকিস্তানী সেনারা সব পুড়িয়ে দেয়ায় ওই বছর পূজা আয়োজন করতে পারেনি পরিবারটি। এছাড়া ১৯৯০ সালের সাম্প্রদায়িক অস্থিরতার কারণে কয়েক বছর প্রতিমা গড়ে পূজার আয়োজন করতে না পারলেও ওই বছরগুলোতে প্রতিমা ছাড়া ঘটেই দুর্গাপূজা করা হয়েছিল।

জানা যায়, ধর্ম নারায়ন সাহা প্রায় ২০০ বছর আগে মির্জাপুর গ্রামে এসে বসতি করেন। বিস্তর জমির ওপরে তখন তিনি একটি পাকা বাড়ি নির্মাণ করেন। এছাড়া বাড়ির সামনে একটি পুকুর ও দুটি মন্দির নির্মাণ করেন। দুটি মন্দিরের মধ্যে একটি দুর্গা মন্দির এবং অন্যটি চণ্ডী মন্দির। বাড়ি নির্মাণ শেষ হবার বছর থেকেই আয়োজন করা হয় দুর্গাপূজা।

সেই থেকে আজো চলছে দুর্গাপূজা আয়োজনের এই ধারাবাহিকতা। ধর্ম নারায়ন সাহার সম্পদ পরিবারের পরবর্তী প্রজন্ম যে যে হারে পেয়েছেন, সেই হারেই নির্ধারিত হয় পূজার পারিবারিক চাঁদা। দেশ-বিদেশে ছড়িয়ে পড়া ধর্ম নারায়ন সাহার উত্তরাধিকারগণ যে যেখানেই থাকেন, সমাবেত হতে চেষ্টা করেন পূজার দিনগুলোতে।

ধর্ম নারায়ন সাহার বাড়ির পূজামণ্ডপ কমিটির বর্তমান সভাপতি অঞ্জন কুমার সাহা। তিনি জানান, তাদের বাড়িতে আয়োজন করা দুর্গাপূজা এবার ১৭৩ বছরে চলছে। দুর্গাপূজার এই আয়োজন কেবল প্রধান ধর্মীয় উৎসব উদযাপনই নয়, এটি ধর্ম নারায়ন সাহার উত্তরসূরিদের এক মহামিলনের উপলক্ষ্যও। যে যেখানে থাকেন দুর্গাপূজার সময়ে তারা ফিরে আসেন শেকড়ের কাছে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর