কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


মিঠামইনে অজ্ঞাত লাশের পরিচয় সনাক্ত, বাড়ি পাকুন্দিয়ায়


 বিজয় কর রতন, মিঠামইন | ৮ জুন ২০২১, মঙ্গলবার, ১২:০৬ | বিশেষ সংবাদ 



কিশোরগঞ্জের মিঠামইনে রোববার (৬ জুন) সকালে উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাতনামা লাশের পরিচয় সনাক্ত হয়েছে। ময়মনসিংহ থেকে সিআইডি ক্রাইমসিন টিম এবং সিআইডি কিশোরগঞ্জ জেলার একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর অজ্ঞাতনামা লাশের পরিচয় সনাক্ত করে।

প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে লাশের পরিচয় সনাক্ত করে জানা যায়, নিহতের নাম আঙ্গুরা (৪৫)। তার বাড়ি জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার বুরুদিয়া ইউনিয়নের বেজুরদিয়া গ্রামে। তার পিতার নাম আব্দুল হক।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, রোববার (৬ জুন) সকালে মিঠামইন উপজেলার ঘাগড়া ইউনিয়নের হোসেনপুর গ্রামের পশ্চিমে হোসেনপুর-উরিয়ন্দ রাস্তার পাশ থেকে ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে মিঠামইন থানা পুলিশ৷

রোববার (৬ জুন) সকালে স্থানীয় স্কুল শিক্ষক জাকির হোসেন হোসেনপুর-উরিয়ন্দ রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তার পাশে এক নারীর লাশ পড়ে থাকতে দেখেন।

বিষয়টি তাৎক্ষণিক তিনি মিঠামইন থানা পুলিশকে জানালে ওসি মো. জাকির রব্বানী ঘটনাস্থলে যান। ঘটনাস্থলে ছুটে যান অষ্টগ্রাম সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার এসএম আজিজুল হক।

তারা এই নারীর পরিচয় সম্পর্কে আশপাশের লোকজনকে জিজ্ঞাসা করলেও স্থানীয়রা কোন তথ্য দিতে পারেননি।

খবর পেয়ে পিবিআই এর একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই নারীর পরিচয় সনাক্ত করার চেষ্টা করে।

এছাড়া ময়মনসিংহ থেকে সিআইডি ক্রাইমসিন টিম এবং সিআইডি কিশোরগঞ্জ জেলার একটি টিম ঘটনাস্থলে যায়।

দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর ময়মনসিংহ থেকে আসা সিআইডি ক্রাইমসিন টিম প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে বিকাল ৪টার দিকে অজ্ঞাতনামা লাশের পরিচয় সনাক্ত করে।

মিঠামইন থানার ওসি মো. জাকির রব্বানী জানান, নিহত নারীর পরিচয় পাওয়া গেছে। সে মানসিক ভারসাম্যহীন ছিল। প্রায় ৬ মাস যাবৎ সে নিখোঁজ। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুজি করে তাকে পায়নি।

পরিচয় সনাক্ত হওয়ার পর ওই নারীর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

এ ব্যাপারে মিঠামইন থানায় একটি জিডি করা হয়েছে বলেও ওসি মো. জাকির রব্বানী জানিয়েছেন।


[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর