কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ভৈরব থানায় সিসি ক্যামেরা কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ


 আফসার হোসেন তূর্জা, ভৈরব | ১০ জুন ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১২:৪৬ | বিশেষ সংবাদ 



কিশোরগঞ্জ জেলা পুলিশের পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) বলেছেন, ভৈরবে কিশোর গ্যাং বলতে কিছু নেই, আছে বখাটেপনা। আর এই বখাটেপনা বন্ধ হয়ে যাবে তাদের অভিভাবকরা সচেতন হলেই।

বুধবার (৯ জুন) বিকালে ভৈরব থানা পুলিশের আয়োজনে থানা প্রাঙ্গণে মাদক, নারী নির্যাতন, বাল্যবিবাহ ও জঙ্গি বিরোধী সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

‘মুজিব বর্ষের অঙ্গিকার, পুলিশ হবে জনতার’ এই স্লোগানকে প্রতিপাদ্য করে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার)।

তিনি বলেন, এ পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হলে সকলকে ঐকবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। প্রশাসন ও জনগণ ঐকবদ্ধ হয়ে কাজ করলেই ভৈরব থেকে মাদক ও ছিনতাই নির্মুল করা সম্ভব হবে।

এছাড়া মাদক নির্মুল করতে হলে মাদক মামলার পাশাপাশি মাদক ব্যবসায়ীরা যেহেতু কালো টাকা লেনদেন করে সেহেতু মাদক মামলার সাথে মানি লন্ডারিং মামলা দিয়ে দিলে ব্যবসায়ীর পুরো লিংকটা বের করা সম্ভব হবে।

মাদকের পাশাপাশি জঙ্গিবাদ যেন সৃষ্টি না হতে পারে সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। কারণ মাদক ও জঙ্গিবাদ দুটোই মাথাটাকে নষ্টের দিকে ঠেলে দেয়। এই দুইটাকে নির্মূল করতে না পারলে এদেশকে সোনার বাংলায় রূপান্তর করা সম্ভব নয়।

ভৈরব থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শাহিনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুবনা ফারজানা, পৌর মেয়র আলহাজ্ব মো. ইফতেখার হোসেন বেনু, র‌্যাব-১৪, সিপিসি-৩, ভৈরব ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিউদ্দীন মোহাম্মদ যোবায়ের, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) নূরে আলম, ভৈরব-কুলিয়ারচর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার রেজওয়ান দীপু, ভৈরব উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সেন্টু, প্রয়াত রাষ্ট্রপতি আলহাজ্ব জিল্লুর রহমানের সাবেক একান্ত সচিব অধ্যাপক লুৎফর রহমান ফুলু, ভৈরব চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আলহাজ্ব হুমায়ুন কবির, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম বাকী বিল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক আতিক আহমেদ সৌরভ প্রমুখ।

সমাবেশ সঞ্চালনা করেন ভৈরব থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) কাজী মো. মাহফুজ হাসান সিদ্দিকী।

সমাবেশে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ, রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশে যোগ দেওয়া ছাড়াও পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) ভৈরব থানায় সিসি ক্যামেরা কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

সিসি ক্যামেরা কার্যক্রম উদ্বোধন শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে প্রশ্নোত্তরকালে পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) বলেন, স্থানীয়দের সহযোগিতা, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভৈরব থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শাহিন এর পরোক্ষ তত্ত্বাবধানে আজ সিসি ক্যামেরার উদ্বোধন করা হয়েছে। সকলের সহযোগিতা পেলে অপরাধ সংঘটিত এলাকাগুলোতে সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে অপরাধীদের চিহ্নিত করে বিচারের আওতায় এনে অপরাধ নির্মুল করা যাবে। পুলিশ ২৪ ঘণ্টা সিসি ক্যামেরা পর্যবেক্ষণ করবে।

এ সময় তিঁনি আরেক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ভৈরবে এ পর্যন্ত ছিনতাইকারীদের হাতে যতোগুলো হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে, সবগুলোরই আসামি শনাক্তসহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কিছুদিন আগে ভৈরব ব্রীজে যে হত্যাকাণ্ডটি সংঘটিত হয়েছিল ভৈরব থানা পুলিশ ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আসামিদের ধরতে সক্ষম হয়েছে।

পুলিশ সুপার আরো বলেন, আজ যে হত্যাকাণ্ড ভৈরবের নাটালের পাশে হয়েছে, এটির সাথে জড়িতদেরও খুব দ্রুত চিহ্নিত করে গ্রেপ্তার করবে পুলিশ।

ভৈরব থেকে ছিনতাই, মাদক, ধর্ষণ, বাল্য বিবাহ ও জঙ্গি নির্মূলে স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সহযোগিতা কামনা করে পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) বলেন, ভৈরবের সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা পেলে ভৈরবকে একটি মডেল থানা হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব হবে।


[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর