কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


মিঠামইনে সংঘর্ষের ১২ দিন পর আহত একজনের মৃত্যু



 বিজয় কর রতন, মিঠামইন | ৩ অক্টোবর ২০২১, রবিবার, ৮:১৬ | মিঠামইন 



কিশোরগঞ্জের মিঠামইনে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে একই এলাকার বিবদমান দু’পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত হওয়ার ১২দিন পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মো. আনোয়ার মিয়া (৪০) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (২ অক্টোবর) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

নিহত মো. আনোয়ার মিয়া মিঠামইন উপজেলার ঘাগড়া ইউনিয়নের খলাপাড়া গ্রামের পুরানবাড়ির নূরুল ইসলামের ছেলে। তিনি পুরান বাড়ি জামাল পক্ষের লোক ছিলেন।

এর আগে গত ২১ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় খলাপাড়া গ্রামের আশরাফ মৌলানা পক্ষ ও পুরান বাড়ি জামাল পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে তিনি আহত হয়েছিলেন। ওইদিনের সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, মাওলানা আশরাফ আলীর নেতৃত্বাধিন আশরাফ মৌলানা পক্ষের সাথে পুরান বাড়ি জামাল পক্ষের বেশ কয়েক মাস ধরে বিরোধ চলে আসছিল।

এ রকম পরিস্থিতিতে মাওলানা আশরাফ আলীর বিরুদ্ধে পুরান বাড়ী পক্ষের ইটালী প্রবাসী জাকন মিয়া ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

এর জের ধরে গত ২১ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৭টার দিকে উভয়পক্ষ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মুখোমুখি সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। প্রায় ৩০ মিনিট ধরে চলা এই সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হয়।

তাদের মধ্যে গুরুতর আহত পুরান বাড়ী পক্ষের আনোয়ার (৪০), ফরিদ (৩৫) ও লায়েছ (৪৫) কে বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আনোয়ারের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল।

সেখানে চিকিৎসা নেয়ার এক পর্যায়ে শনিবার (২ অক্টোবর) তাকে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।

পরে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবারই (২ অক্টোবর) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে আনোয়ারের মৃত্যু হয়।


[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর