কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কটিয়াদীতে বন্ধের ঘোষণা দিয়েও খোলা দোকানপাট, স্বাস্থ্য বিধির বালাই নেই


 মো. রফিকুল হায়দার টিটু, কটিয়াদী | ২২ মে ২০২০, শুক্রবার, ১:৩৮ | কটিয়াদী 


রোজার দিনগুলো ফুরিয়ে যাচ্ছে। পবিত্র ঈদুল ফিতর দুয়ারে কড়া নাড়ছে। এখনো নতুন জামা কাপড় কেনা হয়নি। আর ঘরে বসে থাকা যাবে না। বাজারে যেতেই হবে। বিকাল চারটার পর দোকানপাট বন্ধ হয়ে যাবে।

তাই ভোরের আলো ফোটার আগেই রাস্তায় রাস্তায় রিকশা, অটোরিকশার টুনটুনানি। মানুষ ছুটছে বাজারে। যার ৮০ ভাগই নারী-শিশু।

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে ঈদ বাজারে বিশেষ করে জুতা, জামা কাপড় ও প্রসাধনীর দোকানগুলো দেখলে মনে হবে না যে, পৃথিবী জুড়ে করোনাভাইরাস মহামারীর মারাত্মক প্রভাব পড়েছে।

উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের যৌথ আলোচনায় আগামী ৩০ মে পর্যন্ত দোকানপাট বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়ে মাইকিং করা হয়েছে।

কিন্তু ঈদকে সামনে রেখে জুতা, জামা-কাপড় ও প্রসাধনীর দোকানগুলো বিকাল চারটা পর্যন্ত খোলা রাখার অনুমতি মিলেছে।

তাই হুমড়ি খেয়ে পড়েছে ক্রেতারা। যেখানে স্বাস্থ্য বিধির বালাই বলতে কিছু নেই। বিকালের আগেই কেনা কাটা সারতে হবে। সময় নষ্ট করার মত সময় নেই। দাম যাই হোক পছন্দ হয়েছে তো ঝটপট কেনা কাটা শেষ করতে হবে।

এবার ক্রেতার দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য দোকানগুলোতে আলোক সজ্জা নেই। নেই কোন বাহারী বিজ্ঞাপন। করোনাভাইরাস মোকাবেলায় মার্কেটগুলোতে লকডাউনের ঘোষণা থাকলেও ক্রেতাদের চাহিদার কারণে ব্যবসায়ীরাও সূর্যোদয়ের পূর্বেই দোকানপাট খুলছেন।

দোকান দোকানে ভিড় করে ক্রেতারা কেনাকাটা করছেন। সাহরির পর দূর-দূরান্তের ক্রেতাদের আর ঘুম নেই। ছুটছেন জামা কাপড় কিনতে। এক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্বের বিষয়টিও উপেক্ষিত রয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সূত্র মতে, বুধবার (২০ মে) পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে কটিয়াদী উপজেলায় নতুন করে আরও দুজন করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছেন। যার একজন কাপড় ব্যবসায়ী। ফলে ঈদ আনন্দের আড়ালে কি অপেক্ষা করছে তা একমাত্র আল্লাহই ভাল জানেন।

দোকানপাট খোলার ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা. আকতারুন নেছা বলেন, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের সাথে আলাপ করেই ৩০ মে পর্যন্ত দোকানপাট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছিল।

পরে কিশোরগঞ্জ চেম্বার এর সিদ্ধান্তের সাথে তাল মিলিয়ে কটিয়াদী বাজারের ব্যবসায়ীগণ দোকানপাট খুলতে শুরু করে। এখানে সরকারি কোন নিষেধাজ্ঞা ছিল না।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর