কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


‘শিক্ষকতার পাশপাশি ওকালতি’র সংবাদকে মিথ্যা বললেন মুহাম্মদ সাঈফ


 কিশোরগঞ্জ নিউজ ডেস্ক | ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ১:৫৩ | রকমারি 


গত ৩ সেপ্টেম্বর কিশোরগঞ্জ নিউজ এ ‘সরকারি স্কুলে চাকরি করেও তিনি ব্যস্ত আইন পেশায়’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের ব্যাখ্যা দিয়েছেন বাজিতপুর উপজেলার দিলালপুর ইউনিয়নের বাহেরনগর গ্রামের বাসিন্দা মুহাম্মদ সাঈফ। তিনি তার ব্যাখ্যায় বলেছেন, ‘আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করা হচ্ছে যে আমি একই সাথে সরকারি চাকুরি এবং আইনজীবী হিসেবে কাজ করছি। মূলত আমি ২৯/৮/১৯ ইং তারিখে সরকারি চাকুরি থেকে রিজাইন দিয়েছি। এছাড়া আমি চার মাস আগে থেকেই স্কুলে যাই না এবং বেতন পাওয়াও বন্ধ। কাজেই স্কুলে না গিয়ে বেতন নেওয়ার কোন প্রশ্নই আসে না। আর আমি আইনজীবী হিসেবে নিয়োজিত আছি এবং পাশাপাশি সহকারী শিক্ষক হিসেবে নিয়মিত বেতন তুলছি, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিত। অর্থাৎ ঠিক আমি যে কয় মাস স্কুলে পড়িয়েছি, ঠিক সে কয় মাসের বেতন সরকারের কাছ থেকে নিয়েছি।

আমার সার্টিফিকেট এর নাম মুহাম্মদ সাইফ আর ওকালতি পেশায় আমার নাম মুহাম্মদ সাঈফ আব্বাস অর্থাৎ আমার সার্টিফিকেট নামের সাথে শুধুমাত্র আমার বাবার নাম যোগ করে মুহাম্মদ সাঈফ আব্বাস করেছি বারের সম্মতিক্রমে এবং বিধান অনুযায়ী। কাজেই শিক্ষকতা পেশায় এক নাম এবং পরবর্তীতে আইন পেশায় এসে অন্য নাম ব্যবহার করে প্রতারণা করেছি, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং বানোয়াট।

আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ যে, আমি বছর তিনেক আগে চাকুরিতে যোগদান করে নিয়মিত বেতন তুলছি, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। কেননা আমার সহকারী শিক্ষক হিসেবে যোগদানে তারিখ ৩/১০/২০১৮ ইং। অতএব এ সমস্ত তথ্য মিথ্যা এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিত।’




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর