কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কুলিয়ারচরে ইউপি চেয়ারম্যানকে প্রাণনাশের হুমকি! জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় জিডি


 মুহাম্মদ শাহ্ আলম, কুলিয়ারচর | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, শুক্রবার, ১১:৩০ | কুলিয়ারচর 


কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরের ফরিদপুর ইউনিয়নে মাদক ব্যবসার বিরোধিতা করায় এবং মো. হানিফ মিয়া (৬০) নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ স্থানীয় জনতা আটক করে চেয়ারম্যান এর মাধ্যমে পুলিশে সোপর্দ করায় ওই চেয়ারম্যানকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে মাদক ব্যবসায়ীর আত্মীয় স্বজন।

এ পরিস্থিতিতে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে কুলিয়ারচর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানে মো. শাহ্ আলম।

এদিকে চেয়ারম্যানকে মাদক ব্যবসায়ীর হুমকির প্রতিবাদে গত বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকালে ফরিদপুর ইউনিয়ন পরিষদে এক সংবাদ সম্মেলন করেছেন চেয়ারম্যান মো. শাহ্ আলম।

সংবাদ সম্মেলনে ইউপি চেয়ারম্যান মো. শাহ্ আলম তাঁকে প্রাণনাশের হুমকির তথ্য সাংবাদিকদের নিশ্চিত করে হুমকিদাতা মাদক ব্যবসায়ীদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে ধৃত মাদক ব্যবসায়ী মো. হানিফ মিয়া ও তাঁর শ্যালক  আরেক মাদক ব্যবসায়ী মো. খায়রুল আলম ওরফে ধন মিয়ার অনৈতিক বিভিন্ন অপকর্মের তথ্য তুলে ধরে চেয়ারম্যানকে মোবাইলে প্রাণনাশের হুমকির বিচার দাবি করে আরো বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ফরিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. জিল্লুর রহমান জিলন, উপজেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মুক্তি মাহমুদ খোকা, ফরিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আজিজুল হক কাসেম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. রেফায়েত উল্লাহ, ফরিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম শহিদ প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে চেয়ারম্যান মো. শাহ্ আলম আরো বলেন, এর আগেও উল্লেখিত মাদক ব্যবসায়ী হানিফ এবং খাইরুল ইসলাম ধন মিয়ার বিরুদ্ধে জাল টাকা, জাল স্ট্যাম্প এর ব্যবসা, সুদি ব্যবসা এবং মিথ্যা মামলা করে মানুষকে হয়রানি করাসহ বিভিন্ন অনৈতিক কার্যকলাপের অভিযোগ করে কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসকের নিকট বিচার দাবি করে একটি লিখিত আবেদন দাখিল করেন উপজেলার গোবরিয়া আব্দুল্লাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আব্বাস উদ্দিন, বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা মো. আবদুল ওয়াহাব মাষ্টারসহ স্থানীয় এলাকাবাসী। যা বর্তমানে তদন্তাধীন আছে।

এসময় বক্তারা আরো বলেন, আমরা যখন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে মাদক মুক্ত সমাজ গঠনের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি, তখন মাদক ব্যবসায়ীরা আমাদের প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে যা মেনে নেওয়া যায় না।

উল্লেখ্য, গত বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়ন আব্দুল হামিদ ভূইয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে ফরিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহ আলম স্বেচ্ছাসেবকদের সহায়তায় ৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ উপজেলার পর্শ্চিম  আব্দুল্লাহপুর গ্রামের মৃত মিরাজ আলীর পুত্র কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী মো. হানিফ মিয়া (৫০) কে আটক করে কুলিয়ারচর থানা পুলিশে সোপর্দ করেন।

এই ঘটনার পর ধৃত হানিফ মিয়ার শ্যালক উপজেলার পশ্চিম আব্দুল্লাহপুর গ্রামের মৃত পাশ্বা মিয়ার ছেলে আরেক মাদক ব্যবসায়ী মো.খাইরুল ইসলাম ওরুফে ধন মিয়া (৪৬) ওইদিনই (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৪টার দিকে চেয়ারম্যানের ব্যবহৃত মোবাইলে ফোন করে প্রাণনাশের হুমকি দেয় বলে সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ জানানো হয়। প্রাণনাশের হুমকির মুখে পরিবার পরিজন নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায ভুগছেন তিনি।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর