কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


বয়োবৃদ্ধা নারীকে চিকিৎসা ও খাদ্য সহায়তা, প্রশংসায় ভাসছেন হোসেনপুরের ওসি


 স্টাফ রিপোর্টার | ২৫ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার, ৭:৪০ | হোসেনপুর 


কিশোরগঞ্জ জেলার হোসেনপুর উপজেলার দ্বীপেশ্বর গ্রামের ৯৫ বছর বয়সী বাক্ষুনি বেগম। চার ছেলে ও এক মেয়ের জননী এই বৃদ্ধা করুণ ও মানবেতর জীবনযাপন করছেন। তার চার ছেলের সবাই খুব হতদরিদ্র, নুন আনতে পান্তা পুরোয় অবস্থা। সেখানে মায়ের উন্নত চিকিৎসা তাদের কাছে স্বপ্ন।

বার্ধ্যক্য আর রোগ-ব্যাধিতে কাবু বাক্ষুনি বেগম দীর্ঘদিন যাবৎ শয্যাশায়ী। বেশ কিছুদিন যাবৎ তার অসুস্থতা জটিল পর্যায়ে রয়েছে। কিন্তু অর্থাভাবে চিকিৎসা দূরে থাক, ঠিকমতো তিন বেলা খাবারও পাচ্ছিলেন না তিনি।

সোমবার (২৫ জানুয়ারি) অসহায় এই নারীর এমন দুর্দশার খবর পৌঁছে হোসেনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানের কাছে।

বয়োবৃদ্ধা নারীর অসহায়ত্ব ও দুঃখ-কষ্টের কথা শুনে তিনি তৎক্ষণাত দ্বীপেশ্বর গ্রামে ওই নারীকে দেখতে ছুটে যান।

সেখানে গিয়ে তার চিকিৎসার প্রয়োজনীয়তার কথা জেনে ওসি শেখ মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান নিজে উপস্থিত থেকে অ্যাম্বুলেন্স কল করে বয়োবৃদ্ধাকে হোসেনপুর উপজেলা হাসপাতাল কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।

হাসপাতালে দায়িত্বরত ডাক্তার দেখিয়ে আবারো তিনি অ্যাম্বুলেন্স যোগে বয়োবৃদ্ধাকে বাড়িতে দিয়ে আসেন৷ কিনে দেন ডাক্তারের প্রেসক্রাইব করা ওষুধপত্র।

কেবল চিকিৎসা সেবার মাধ্যমেই তাঁর মানবিক দায়িত্ব পালন করেননি ওসি শেখ মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি বয়োবৃদ্ধা নারীর পরনের জন্য কাপড় ছাড়াও শীতবস্ত্র হিসেবে কম্বল প্রদান করেন।

এছাড়া বয়োবৃদ্ধার খাবারের জন্য ৫০ কেজি চাউলের বস্তা তার বাড়িতে নিয়ে যান।

এ ব্যাপারে ওসি শেখ মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমি মানুষ, মানুষ হিসেবে আমার নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য রয়েছে। সেই নৈতিক দায়িত্ববোধ থেকেই আমি অসহায় এই মায়ের পাশে দাঁড়িয়েছি। এ কাজটি করতে পেরে আমি খুবই তৃপ্ত।

এদিকে হোসেনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানের মানবিক এই কাজের কিছু ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে ভাইরাল হয়।

নেটিজেনরা ওসি শেখ মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানের মানবিকতার প্রশংসা করে এ সংক্রান্ত ছবি ও মন্তব্যে লাইক, কমেন্টস ও শেয়ার করছেন। ফলে উপজেলাজুড়ে প্রশংসায় ভাসছেন হোসেনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা এই পুলিশ কর্মকর্তা।

এ ব্যাপারে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন শিশুদের হাসি ফাউন্ডেশনের সভাপতি মাহমুদুল হক রিয়াদ বলেন, ‘শেখ মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান হোসেনপুর থানায় অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিসেবে যোগদান করার পর থেকে নানামুখী মানবিক তৎপরতা চালিয়ে আসছেন। শিশু ও শিক্ষার্থীবান্ধব পুলিশ অফিসার হিসেবে তিনি যথেষ্ঠ সুনাম কুড়িয়েছেন।

তিনি যোগদানে পর পরই স্কুলে স্কুলে উনার ফোন নম্বর দিয়ে গেছেন এবং যেকোনো সমস্যায় নির্ভয়ে ফোন দিতে বলেছেন। পাশাপাশি অনেক ব্যতিক্রমী মানবিক কাজের মাধ্যমে তিনি সর্বস্তরের মানুষের কাছে পুলিশকে ইতিবাচকভাবে উপস্থাপন করতে সক্ষম হয়েছেন।’




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর