কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কুলিয়ারচরে প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনায় আলোচনা ও দোয়া মাহফিল


 মুহাম্মদ শাহ্ আলম, কুলিয়ারচর | ৯ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার, ১০:০৯ | কুলিয়ারচর 


কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনায় এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (৯ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টায় কুলিয়ারচর উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষক মহাজোট, কুলিয়ারচর উপজেলা শাখার আয়োজনে এই আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষক মহাজোট, কুলিয়ারচর উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি বায়েজিদ মিয়া সভাপতিত্বে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুলিয়ারচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবাইয়াৎ ফেরদৌসী।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুলিয়ারচর উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার নাছিমা বেগম, জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষক মহাজোটের সাধারণ সম্পাদক মো. আল আমিন আহম্মেদ।

আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে ভিটিগাও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. মনিরুজ্জামান, কুলিয়ারচর বাজার আদর্শ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. নুরুল আলম, কুলিয়ারচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সৈয়দ মো. জাকারিয়া, আলী আকবরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সৈয়দ হাবিবুল হক, ষোলরশি হাজী আব্দুল লতিফ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. শামীম উদ্দিন হানিফ, উত্তর চর-কামালপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শফিকুল ইসলাম, মধ্য গোবরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. মজিবুর রহমান, বড়খারচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুর রউফ ও বেতিয়ারকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুহাম্মদ মাহ্ফুজুল হক সহ বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, সহকারী শিক্ষক এবং বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভায় শিক্ষকবৃন্দ বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের গুরুত্ব অনুধাবন করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশে ১৯৭৩ সালে ৩৬ হাজার ১৬৫টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বিদ্যালয়ে কর্মরত শিক্ষকদের চাকুরি জাতীয়করণ করেছিলেন।

তারই ধারাবাহিকতায় ২০১৩ সালের আজকের এই দিনে (৯ জানুয়ারি) তারই কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৬ হাজার ১৯৩টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত শিক্ষকদের চাকুরি জাতীয়করণের ঘোষণা দেন।

কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় ০৮/১০/১৭ তারিখের পরিপত্রের মাধ্যমে জরুরি ভিত্তিতে বিভাগওয়ারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারদেরকে কার্যকর চাকুরিকালের ভিত্তিতে হিসাব না ধরে বিধিমালা-২০১৩ এর বিধি-৯ উপবিধি (১) এর ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে বেআইনি ভাবে কার্যকর চাকুরি কালের তারিখের পরিবর্তে ১/১/১৩ (জাতীয়করণের) ধরে জ্যেষ্ঠতা তালিকা করার মৌখিক নির্দেশনা দিয়ে জাতীয়করণকৃত সহকারী শিক্ষকদের প্রধান শিক্ষক পদে চলতি দায়িত্ব প্রদান থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে।

এ সময় বক্তারা আরও বলেন, আমরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা বাস্তবায়নে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থেকে জাতীয়করণকৃত শিক্ষকদের সমস্যাবলী যেমন জ্যেষ্ঠতা, পদোন্নতি ও টাইমস্কেল জটিলতা নিরসনে শিক্ষাবান্ধব সরকারের কর্ণধার হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সদয় হস্তক্ষেপ ও নির্দেশনা কামনা করছি।

এতে মোনাজাত পরিচালনা করেন দশকাউনিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. জালাল উদ্দীন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর