কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা

ইটনায় জুয়ার আসরে থানা পুলিশের অভিযানে ১১ জুয়াড়ি আটক



 স্টাফ রিপোর্টার | ২৮ জুলাই ২০১৮, শনিবার, ৩:৫০ | ইটনা  


ইটনায় জুয়ার আসরে অভিযান চালিয়ে মো. ফারুক মিয়া (৪২), বাচ্চু মিয়া (৩৬), সবুজ মিয়া (৪০), আমিনুল ইসলাম (৪০), মো. সাইফুল ইসলাম (৩৮), জসিম (৩৫), মো. আমিনুল ইসলাম (২৭), মো. সাহাবউদ্দিন (২৫), মো. আল আমিন (২২), মো. মতি মিয়া (৪০) ও মো. নজরুল (৪২) নামে ১১ জুয়াড়িকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (২৭ জুলাই) দিবাগত রাত পৌনে ১২টার দিকে উপজেলার জয়সিদ্ধি ইউনিয়নের ওয়ারা বারবাড়িয়া গ্রামের একটি ঘর থেকে তাদের আটক করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে মোট ৩৫ হাজার ৭৮ টাকা জব্দ করা হয়।

ইটনা থানার ওসি মো. মুর্শেদ জামানের নেতৃত্বে এসআই ফারুক আহমেদ, এসআই কামরুজ্জামান, এসআই কাওছার আল-মাসুদ, এএসআই শামীম আহমেদ, এএসআই আমজাদ হোসেন, এএসআই উজ্জ্বল মিয়া ও এএসআই আজিজুল ইসলামসহ সঙ্গীয় ফোর্স এই আটকাভিযান পরিচালনা করেন।

আটক জুয়াড়িদের মধ্যে মো. ফারুক মিয়া উপজেলার মুদিরগাঁও গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে, বাচ্চু মিয়া ওয়ারা বারবাড়িয়া গ্রামের মেহের আলীর ছেলে, সবুজ মিয়া পাগলশী গ্রামের নূরু মিয়ার ছেলে, আমিনুল ইসলাম ওয়ারা বারবাড়িয়া গ্রামের আব্দুল নজিরের ছেলে, মো. সাইফুল ইসলাম মুদিরগাঁও গ্রামের তালেব আলীর ছেলে, জসিম গজারিয়া গ্রামের সরুগ আলীর ছেলে, মো. আমিনুল ইসলাম সুনামগঞ্জ জেলার শাল্লার সুহাদেব পাশা গ্রামের মৃত আনসার আলীর ছেলে, মো. সাহাবউদ্দিন উয়ারা গ্রামের মো. জলিল মিয়ার ছেলে, মো. আল আমিন ওয়ারা বারবাড়িয়া গ্রামের আজমান মিয়ার ছেলে, মো. মতি মিয়া মুদিরগাঁও গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে এবং মো. নজরুল মুদিরগাঁও গ্রামের শুক্কুর মামুদের ছেলে।

ইটনা থানার ওসি মো. মুর্শেদ জামান জানান, এ ব্যাপারে জুয়া আইনে মামলা দায়েরের পর শনিবার (২৮ জুলাই) তাদের আদালতে চালান দেয়া হয়েছে। সন্ত্রাস, মাদক ও জুয়ার ক্ষেত্রে কোন আপস নয় জানিয়ে ওসি বলেন, এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]


এ বিভাগের আরও খবর



















সেগুনবাগিচা, গৌরাঙ্গবাজার, কিশোরগঞ্জ-২৩০০
মোবাইল:০ ১৮১৯ ৮৯১০৮৮, ০১৮৪১ ৮১৫৫০০
kishoreganjnews247@gmail.com
Web: www. kishoreganjnews.com
প্রধান সম্পাদক: আশরাফুল ইসলাম
সম্পাদক: সিম্মী আহাম্মেদ