কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


সৈয়দ আশরাফের অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করবেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী


 স্টাফ রিপোর্টার | ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ৯:৪০ | বিশেষ সংবাদ 


রাজনীতির বরপুত্র আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের রেখে যাওয়া অসমাপ্ত কাজগুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাস্তবায়নে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন সৈয়দ পরিবারের জামাতা জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি। তিনি বলেছেন, কিশোরগঞ্জের বরেণ্য রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ দেশ ও জাতির উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে গেছেন। কিশোরগঞ্জের কীর্তিমান রাজনীতিবিদ সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের স্বপ্ন বাস্তবায়নে তার রেখে যাওয়া অসমাপ্ত কাজগুলো করার সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাব।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, কিশোরগঞ্জ অর্থনৈতিকভাবে একটি সম্ভাবনাময় জেলা। এখানকার মাছ ও ফসল সংরক্ষণের জন্য ফিস প্রসেসিং সেন্টার এবং কোল্ড স্টোরেজ নির্মাণে উদ্যোগ নেয়া হবে। এছাড়া কিশোরগঞ্জ-ঢাকা রুটে নতুন একটি উন্নতমানের ট্রেন চালু এবং এ অঞ্চলের রেলপথের উন্নয়নে উদ্যোগ নেয়া হবে।

শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকালে কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা, সুশীল সমাজ এবং কালেক্টরেট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি এসব কথা বলেন।

কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই মতবিনিময় সভায় পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার), সিভিল সার্জন ডা. মো. হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এম এ আফজল, পৌর মেয়র মাহমুদ পারভেজ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মো. আসাদ উল্লাহ, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক বিলকিস বেগম, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাচ্চু, কিশোরগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মজিবুর রহমান বেলাল, জেলা উইমেন চেম্বারের সভাপতি ফাতেমা জোহরা আক্তার প্রমুখসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, রাজনীতিক ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা বক্তব্য রাখেন এবং উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময় সভা শেষে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার যশোদল ইউনিয়নের বীরদামপাড়া গ্রামে চাচাশ্বশুর শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলামের বাড়িতে যান। সেখানে বাড়ি সংলগ্ন মসজিদে তিনি জুম্মার নামাজ আদায় করেন এবং জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর শাশুড়ি সৈয়দা আমেনা খাতুনের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে অংশ নেন।

পরে বিকালে তিনি যশোদল ইউনিয়নে ‘যার জমি আছে ঘর নেই. তার নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ’ প্রকল্পের উপকারভোগী ১৮ জনের মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘরের চাবি হস্তান্তর করেন।

চার দিনের সফরে বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি কিশোরগঞ্জে এসেছেন। জামাইবরণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রতিমন্ত্রীকে বরণ করে নেন কিশোরগঞ্জবাসী। শহরতলীর বিন্নাটি চৌরাস্তা মোড়ে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে ফুল ছিটিয়ে সাদরে বরণ করা হয় প্রতিমন্ত্রীকে। সেখানে দেয়া হয় উষ্ণ সংবর্ধনা।

মুক্তিযুদ্ধকালীন প্রবাসী সরকারের অস্থায়ী প্রেসিডেন্ট শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলামের ছোট ভাই কিশোরগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রয়াত সৈয়দ ওয়াহিদুল ইসলাম পট্টু মিয়ার কন্যা সৈয়দা মোনালিসা ইসলাম শিলার স্বামী জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি। ২০০৩ সালে তাদের বিয়ে হয়।

এ বছরের ৩রা জানুয়ারি সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম ইন্তেকাল করার পর তাঁর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান চাচাতো বোন জামাই ফরহাদ হোসেন এমপি। তিনি মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী হওয়ার পর প্রথমবারের মতো স্ত্রী সৈয়দা মোনালিসা শিলাকে নিয়ে চার দিনের সফরে শ্বশুরবাড়ি কিশোরগঞ্জে এসেছেন ফরহাদ হোসেন এমপি। ফলে প্রতিমন্ত্রী জামাইকে বরণ নেয়ার জন্য সাজ সাজ রব পড়ে কিশোরগঞ্জে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর