কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ভৈরবে মারা যাওয়া ইতালি ফেরত ব্যক্তির বিশেষ ব্যবস্থায় দাফন সম্পন্ন


 স্টাফ রিপোর্টার | ২৩ মার্চ ২০২০, সোমবার, ৩:৫৯ | বিশেষ সংবাদ 


ভৈরবে মারা যাওয়া ইতালি ফেরত ব্যক্তির বিশেষ ব্যবস্থায় দাফন সম্পন্ন হয়েছে। সোমবার (২৩ মার্চ) সকালে ঢাকা থেকে আইইডিসিআর এর লোকজন এসে নমুনা সংগ্রহ করেন। পরে দুপুর ১টর দিকে বাড়ির কয়েকজনের অংশগ্রহণে জানাজা শেষে বেলা দেড়টার দিকে ভৈরব পৌর কবরস্থানে বিশেষ ব্যবস্থায় লাশ দাফন করা হয়।

ভৈরব থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বাহালুল খান বাহার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ওই ব্যক্তির বাড়িতে অনুষ্ঠিত জানাজায় পরিবারের তিন সদস্য অংশ নেন। পরে বিশেষ ব্যবস্থায় ভৈরব পৌর কবরস্থানে লাশ দাফন করা হয়।

৬০ বছর বয়সী ইতালি ফেরত ওই ব্যক্তিকে রোববার (২২ মার্চ) রাত ১১টার দিকে ভৈরব শহরের কমলপুর এলাকার ডক্টরস চেম্বার নামে পরিচিত বেসরকারি সাঈদ ইউসুফ মেমোরিয়াল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এর আগে তাকে শহরের লক্ষ্মীপুর এলাকার আবেদীন হাসপাতাল (প্রা.) নামে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে সরকারি আইসোলেশন সেন্টারে নিয়ে যাওয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। ইতালি ফেরত ওই ব্যক্তি জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন।

করোনাভাইরাস সন্দেহে মারা যাওয়া ওই ব্যক্তির রক্তের নমুনা সংগ্রহ করেছে আইইডিসিআর। সোমবার (২৩ মার্চ) সকালে ঢাকা থেকে আইইডিসিআর এর লোকজন ভৈরবে এসে মৃতদেহ থেকে রক্তের নমুনা সংগ্রহ করে।

এ ঘটনায় বেসরকারি হাসপাতাল দু’টি লকডাউন করে দেয়া হয়েছে এবং মারা যাওয়া ব্যক্তির বাড়িসহ আশেপাশের ১০টি বাড়ি বিশেষ নজরদারীতে রাখা হয়েছে। এছাড়া ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে যারা ছিলেন তাদের তালিকা করা হচ্ছে।

কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান জানান, ওই ব্যক্তি গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ইতালি থেকে দেশে ফিরেন। ৩/৪ দিন ধরে তিনি জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। কিন্তু কোথাও তিনি চিকিৎসা নেননি।

রোববার (২২ মার্চ) রাতে তার অবস্থার অবনতি হলে প্রথমে আবেদীন হাসপাতাল (প্রা.) নামে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেয়া হয়।

সেখান থেকে তাকে সাঈদ ইউসুফ মেমোরিয়াল হাসপাতালে নামে আরেকটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

মৃত ব্যক্তি ইতালি ফেরত হওয়ায় এবং তার মধ্যে জ্বর ও শ্বাসকষ্টের মতো উপসর্গ থাকায় করোনাভাইরাস আক্রান্ত বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। এ কারণে মারা যাওয়া ওই ব্যক্তির রক্তের নমুনা সংগ্রহ করেছে আইইডিসিআর। পরীক্ষার পর করোনাভাইরাসের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মারা যাওয়া ইতালি ফেরত ব্যক্তির বাড়ি ভৈরব পৌর শহরের জগন্নাথপুর এলাকায়। তিনি গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ইতালি থেকে দেশে ফিরেছিলেন। তিনি নিজে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা বা উপজেলা পর্যায়ে গঠিত করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির কারো সাথে যোগাযোগ করেননি।

মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনি স্বাভাবিক জীবনযাপন করেছেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর