কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে নতুন করে ১৫ জনের করোনা, আরো দুইজনের মৃত্যু, সুস্থ ৪৪


 কিশোরগঞ্জ নিউজ রিপোর্ট | ৬ জুলাই ২০২০, সোমবার, ১০:৫৫ | বিশেষ সংবাদ 


কিশোরগঞ্জে সর্বশেষ সোমবার (৬ জুলাই) দিবাগত রাতে পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে জেলায় নতুন করে ১৫ জনের করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। নতুন করে আরো ৪৪ জন সুস্থ হয়েছেন। এছাড়া সর্বশেষ ২৪ ঘন্টায় আরো দুইজনের মৃত্যু হয়েছে।

ফলে এ পর্যন্ত জেলার ১৩ উপজেলায় এক হাজার ৬৪৬ জনের শরীরে ধরা পড়েছে করোনা। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ২৮৮ জন। এছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মোট ২৮ জন মারা গেছেন।

সর্বশেষ মারা যাওয়া দুইজনের মধ্যে একজন নিকলী উপজেলার ও বাজিতপুর উপজেলার। মারা যাওয়া দুইজনই পুরুষ।

তাদের মধ্যে নিকলী উপজেলার ৬৫ বছর বয়সী পুরুষ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীর অবস্থায় রোববার (৫ জুলাই) দিবাগত রাত ২টার দিকে মারা যান।

এছাড়া বাজিতপুর উপজেলার ৯০ বছর বয়সী পুরুষ নিজবাড়িতে সোমবার (৬ জুলাই) সকাল সাড়ে ৮টায় মারা গেছেন।

সোমবার (৬ জুলাই) দিবাগত রাতে পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে জেলায় নতুন করোনা শনাক্ত হওয়া ১৫ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় সর্বোচ্চ ৯ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ৩ জন, ভৈরব উপজেলায় ২ জন ও নিকলী উপজেলায় ১ জন রয়েছেন।

অন্যদিকে নতুন করে জেলায় ৪৪ জন করোনাভাইরাস মুক্ত হয়ে সুস্থ হয়েছেন।

নতুন সুস্থ হওয়া এই ৪৪ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৭ জন, হোসেনপুর উপজেলার ১ জন, তাড়াইল উপজেলার ৬ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলার ৫ জন, কটিয়াদী উপজেলার ১০ জন, ভৈরব উপজেলার ৩ জন ও বাজিতপুর উপজেলার সর্বোচ্চ ১২ জন রয়েছেন।

শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রি-আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তিকৃত জরুরী রোগীসহ শনিবার (৪ জুলাই) ও রোববার (৫ জুলাই) সংগৃহীত ১৮৮ জনের নমুনা কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষা করা হয়।

ল্যাবটিতে মোট ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে ১৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

রোববার (৫ জুলাই) পর্যন্ত কিশোরগঞ্জ জেলায় করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছিল ১৬৩১ জন। সোমবার (৬ জুলাই) নতুন করে আরো ১৫ জনের করোনা শনাক্ত হওয়ায় বর্তমানে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬৪৬ জনে।

এদিকে জেলায় করোনাভাইরাস থেকে নতুন করে ৪৪ জন সুস্থ হয়েছেন। এর আগে জেলায় সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ছিল ১২৪৪ জন। ফলে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২৮৮ জন।

বর্তমানে অন্য জেলায় শনাক্তকৃত ১ জন করোনা পজেটিভসহ জেলায় মোট ৩৩১ জন করোনা রোগী এবং ১১ জন সাসপেক্টটেড/নেগেটিভ বিভিন্ন হাসপাতাল ও নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন।

এর মধ্যে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউতে দুইজন কোভিড-১৯ পজেটিভ রোগী ভর্তি রয়েছেন।

সোমবার (৬ জুলাই) দিবাগত রাত ১০টার দিকে কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান কিশোরগঞ্জ নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান জানান, প্রকাশিত ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে নতুন করে ১৫ জনের পজেটিভ ও ১৭০ জনের নেগেটিভ এসেছে। এছাড়া পুরাতন পজেটিভ ৩ জনের আবারও পজেটিভ এসেছে।

ফলে সোমবার (৬ জুলাই) পর্যন্ত পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী কিশোরগঞ্জ জেলায় মোট ১৬৪৬ জনের করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে।

উপজেলাওয়ারী হিসাবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৩৭৫ জন, হোসেনপুর উপজেলার ৩৬ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ১১০ জন, তাড়াইল উপজেলায় ৭৯ জন, পাকুন্দিয়ায় উপজেলায় ৭৬ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ৯৮ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ১০১ জন, ভৈরব উপজেলায় ৫২৭ জন, নিকলী উপজেলায় ৩১ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ১৩৫ জন, ইটনা উপজেলায় ২৯ জন, মিঠামইন উপজেলায় ৩৭ জন ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় ১২ জন এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

তাদের মধ্যে ২৮ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন। উপজেলাওয়ারী হিসেবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৫ জন, হোসেনপুর উপজেলার ১ জন, করিমগঞ্জ উপজেলার ২ জন, তাড়াইল উপজেলার ১ জন, কটিয়াদী উপজেলার ১ জন, কুলিয়ারচর উপজেলার ১ জন, ভৈরব উপজেলার ১২ জন, নিকলী উপজেলার ২ জন, বাজিতপুর উপজেলার ২ জন ও মিঠামইন উপজেলার ১ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন।

সুস্থ ও মৃত ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে বর্তমানে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৩০ জন। উপজেলাওয়ারী হিসাবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৯৯ জন, হোসেনপুর উপজেলার ৯ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ১৫ জন, তাড়াইল উপজেলায় ৩ জন, পাকুন্দিয়ায় উপজেলায় ১৬ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ৪০ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ১৪ জন, ভৈরব উপজেলায় ৬৪ জন, নিকলী উপজেলায় ৯ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ৪২ জন, ইটনা উপজেলায় ৪ জন, মিঠামইন উপজেলায় ৭ জন ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় ৮ জন বর্তমানে করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি রয়েছেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর