কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


আন্তঃজেলা অটো চোর চক্রের চার সদস্য আটক


 স্টাফ রিপোর্টার | ৩ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার, ৭:০১ | অপরাধ 


নেত্রকোণার আটপাড়ায় অভিযান চালিয়ে আন্তঃজেলা অটো চোর চক্রের চার সদস্যকে আটক করেছেন র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের সদস্যরা। এ সময় কিশোরগঞ্জ জেলা সদর থেকে কৌশলে চুরি করে নিয়ে যাওয়া একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সা উদ্ধার করা হয়েছে। র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক লে. কমান্ডার, বিএন এম শোভন খানের নেতৃত্বে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

আটককৃতরা হচ্ছে, ঝোটন চন্দ্র দাস (২৭), পল্লাদ চন্দ্র সরকার (২৯), মো. সাদ্দাম মিয়া (২৩) ও মো. মামুন (২৫)। তাদের মধ্যে ঝোটন চন্দ্র দাস নেত্রকোণা জেলার আটপাড়ার হরিপুর তৈলিগাঁও গ্রামের রাখাল চন্দ্র দাসের ছেলে, পল্লাদ চন্দ্র সরকার কেন্দুয়ার আইতর মিস্ত্রীপাড়ার মৃত নিকিল চন্দ্র সরকারের ছেলে, মো. সাদ্দাম মিয়া আটপাড়ার টাংগা গ্রামের মো. হাকিমের ছেলে এবং মো. মামুন টাংগা গ্রামেরই মো. সবুরের ছেলে।

লে. কমান্ডার, বিএন এম শোভন খান জানান, গত বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) রাতে কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের রথখলা এলাকা থেকে কৌশলে চোর চক্রের সদস্যরা কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার পূর্ব বীরদামপাড়া গ্রামের মামুন মিয়ার ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সাটি চুরি করে নিয়ে যায়। পরে চোরচক্রের সদস্যরা মামুনকে ফোন করে অটোরিক্সাটি ফেরত দেয়ার বিনিময়ে ৪০ হাজার টাকা দাবি করে।

বিষয়টি র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পে জানানোর পর র‌্যাব তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে চোরচক্রের সদস্যদের অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হয়। পরে শনিবার (২ নভেম্বর) সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে নেত্রকোণা জেলার আটপাড়ার তেলীঘাটি বাজারে র‌্যাব অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানে চোর চক্রের চার সদস্য ঝোটন চন্দ্র দাস, পল্লাদ চন্দ্র সরকার, মো. সাদ্দাম মিয়া ও মো. মামুনকে আটক করে তাদের কাছ থেকে চোরাই অটোরিক্সাটি উদ্ধার করে র‌্যাব।

লে. কমান্ডার, বিএন এম শোভন খান আরো জানান, র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে আটক হওয়া চোর চক্রের সদস্যরা জানিয়েছে, তারা বিভিন্ন সময় যাত্রীবেশে অটোরিক্সায় উঠে অটোরিক্সার চালককে নির্জন স্থানে নিয়ে যায় এবং ভয়ভীতি প্রদর্শন, মারধর ও বিভিন্ন প্রতারণার মাধ্যমে অটোরিক্সা ছিনতাই করে।

এ ঘটনায় চুরি হওয়া অটোরিক্সার মালিক মামুন মিয়া বাদী হয়ে আটককৃতদের বিরুদ্ধে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। সে অনুযায়ী পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর