কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


অলওয়েদার সড়ক ঘিরে সম্ভাবনার নতুন দিগন্তে হাওরবাসী


 বিশেষ প্রতিনিধি | ৭ অক্টোবর ২০২০, বুধবার, ৭:৩২ | হাওর 


প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের লীলাভূমি দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের জেলা কিশোরগঞ্জের পূর্ব প্রান্তে বিস্তীর্ণ হাওর এলাকা নিয়ে ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম উপজেলার অবস্থান। হাওর অধ্যুষিত এই তিনটি উপজেলা বছরে অর্ধেকের বেশী সময় জলমগ্ন থাকায় এলাকাটি অনগ্রসর ও দূর্গম হিসেবে পরিচিত।

হাওর এলাকায় সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা ছিল না বললেই চলে। ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম উপজেলার মধ্যে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ না থাকায় বর্ষাকাল ও শুষ্ক মৌসুমে তিনটি উপজেলার জনগণকে অবর্ণনীয় কষ্টের সম্মুখীন হতে হত।

হাওরবাসীর কষ্ট লাঘবে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এঁর অভিপ্রায় অনুযায়ী এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম উপজেলার মধ্যে সারা বছর চলাচলের লক্ষ্যে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর কর্তৃক ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম সড়ক নির্মাণ প্রকল্প গৃহীত হয়।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ২০১৬ সালের ২১ এপ্রিল আনুষ্ঠানিকভাবে ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম সড়ক প্রকল্পের নির্মাণ কাজের শুভ উদ্বোধন করেন।

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর কিশোরগঞ্জ জেলার হাওর অধ্যুষিত ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম তিন উপজেলায় ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম সড়ক নির্মাণ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করেছে।

এই প্রকল্পের আওতায় ৮৭৪.০৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ২৮.৭৭০ কিলোমিটার হার্ডসোল্ডারসহ ফ্লেক্সিবল পেভমেন্ট নির্মাণ, ৫৯০.৪৭ মিটার দীর্ঘ ৩টি পিসি গার্ডার নির্মাণ, ১৯০.০০ মিটার দীর্ঘ ৬২টি আরসিসি বক্স কালভার্ট নির্মাণ, ২৬৯.৬৮ মিটার দীর্ঘ ১১ টি আরসিসি গার্ডার ব্রীজ নির্মাণ ও ৭.৬০ লক্ষ বর্গমিটার সিসি ব্লক দ্বারা স্লোপ প্রটেকশন কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

সড়কটি ইটনা উপজেলা সদর হতে শুরু হয়ে ধুন ও বাউলাই নদীর সমান্তরালে সম্পূর্ণভাবে বিস্তীর্ণ হাওরের মধ্যে দিয়ে অতিক্রম করে মিঠাইন উপজেলা সদর হয়ে অষ্টগ্রাম উপজেলা সদরে সমাপ্ত হয়েছে।

বর্ষাকালে হাওরের পানির প্রচণ্ড স্রোতে যেন নির্মিত সড়ক বাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেজন্য সড়কের সম্পূর্ণ দৈর্ঘ্যে সড়ক বাঁধের উভয় পার্শ্বের স্লোপে সিসি ব্লক দ্বারা রক্ষাপ্রদ কাজ ও সড়ক বাঁধের স্থায়িত্ব রক্ষার্থে টো-ওয়াল বরাবর সিসি ব্লক দ্বারা ফলিং এপ্রোনের কাজ করা হয়েছে।

বর্ষাকালে সড়কের উভয় পার্শ্বে অবস্থিত গ্রামসমূহে নৌপথে যাতায়াতের লক্ষ্যে সড়কের বিভিন্ন স্থানে প্রয়োজনীয় সংখ্যক সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া শুষ্ক মৌসুমে কৃষি জমিতে যেন সেচ কাজ বাধাগ্রস্ত না হয় এবং হাওরের উৎপাদিত ফসলবাহী যানবাহন যেন সড়কের নীচ দিয়ে অনায়াসে যাতায়াত করতে পারে সেজন্য সড়কের বিভিন্ন স্থানে ছোট বড় কালভার্ট নির্মাণ করা হয়েছে।

হাওরবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্ন সদ্য নির্মিত ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম সড়কটি এরই মধ্যে পরিচিতি পেয়েছে হাওরের বিস্ময় হিসেবে। সড়কটি নির্মিত হওয়ায় অনুন্নত হাওর এলাকায় আর্থ সামাজিক উন্নয়নে ব্যাপক পরিবর্তন সূচিত হবে। সড়কটিতে প্রতিদিন অসংখ্য পর্যটকের আগমনে এলাকার মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হওয়ায় ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম তিন উপজেলার মধ্যে সারা বছর চলাচলের উপযোগী সড়ক নেটওর্য়াক প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর অদূর ভবিষ্যতে মিঠামইন উপজেলার সাথে একটি ফ্লাইওভারের মাধ্যমে করিমগঞ্জ উপজেলার সাথে এবং অষ্টগ্রাম উপজেলার মাধ্যমে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার সাথে তথা ঢাকা, সিলেট ও চট্টগ্রামসহ দেশের অন্যান্য জেলার সঙ্গে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ প্রতিষ্ঠিত হবে।

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের বিদ্যমান সড়ক নেটওয়ার্কে ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম সড়ক সংযোজনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নে যুক্ত হল সফলতার আরও একটি নতুন মাত্রা।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর