কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


‘প্রেসিডেন্ট রিসোর্ট’ উদ্বোধন


 বিজয় কর রতন, মিঠামইন | ৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, শনিবার, ৭:১২ | হাওর 



‘হাওরের বুকে এক টুকরো স্বর্গ’ হিসেবে পরিচিতি পাওয়া ‘প্রেসিডেন্ট রিসোর্ট’ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) প্রধান অতিথি হিসেবে প্রেসিডেন্ট রিসোর্ট এর উদ্বোধনী ফলক উন্মোচন করেন প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদের বড় ছেলে কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক।

ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম অলওয়েদার সড়কের মিঠামইন উপজেলার আড়াই কিলোমিটার পূর্বদিকে ঘাগড়া ইউনিয়নের হোসেনপুর গ্রামের দক্ষিণের হাওরে প্রায় ৪০ একর জায়গাজুড়ে একটি পুকুরের চারপাশে নির্মাণ করা অত্যাধুনিক ‘প্রেসিডেন্ট রিসোর্ট’ এর উদ্বোধন উপলক্ষে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক ছাড়াও গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম, কিশোরগঞ্জের পুলিশ  সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার), জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট মো. জিল্লুর রহমান, সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির  সভাপতি আলহাজ মিশা সদাগর, সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক জায়েদ খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. শাহজাহান মিয়া, জেলা পরিষদের সদস্য সমীর কুমার বৈষ্ণব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের (উত্তর) যুগ্মকমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বিপিএম (বার), পিপিএম (বার), কিশোরগঞ্জ জেলা মহিলা লীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট শামসুন্নাহার নেলী, চিত্রতারকা মনোয়ার হোসেন ডিপজল, মাসুম পারভেজ রুবেল, বিপাশা কবীর প্রমুখ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রেসিডেন্ট রিসোর্ট এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. শাহরিয়ার।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক বলেন, বিগত বছরের ৪ঠা ডিসেম্বর এই প্রেসিডেন্ট রিসোর্টের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেছিলাম। কিন্তু আশ্চর্য্যরে বিষয় হলো, মাত্র ৮ মাসের মধ্যে এ রিসোর্টটির নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। এটি একটি অবিশ্বাস্য ব্যাপার।

ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের সময় মাত্র একটি পুকুর ছিল। এখন এখানে চারপাশে গাছপালা, ডুপ্লেক্স কটেজ, কালচারাল সেন্টার, আউটডোরসহ পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে নানা রকম কারুকার্য সম্বলিত পাথরের বিভিন্ন সামগ্রী তৈরি করা হয়েছে।

সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক বলেন, এক সময় হাওর অবহেলিত ছিল। বর্তমানে মহামান্য রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক চেষ্টায় হাওরে ৩৫ কিলোমিটার অলওয়েদার সড়ক নির্মাণ করা হয়েছে। ১৪ কিলোমিটার উড়াল সেতু নির্মাণের কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। মিঠামইন ক্যান্টনমেন্টের কাজ অচিরেই শুরু হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এসকল দৃশ্য উপভোগ করতে প্রতিদিন হাজার হাজার পর্যটক হাওরে আসছে। তাদেরকে সামাল দেয়া ও নিরাপত্তার ব্যবস্থার জন্য প্রশাসনকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

তিনি প্রেসিডেন্ট রিসোর্টের নির্মাণ শৈলীর প্রশংসা করে বলেন, এ রিসোর্টটি খুবই উন্নতমানের। এখন আর হানিমুনের জন্য কক্সবাজারসহ বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রে যেতে হবে না।

হাওরে পর্যটকদের ফেলে যাওয়া পানীয় বোতল, পলিথিন হাওরে ভাসমান অবস্থায় বর্জ্যের সৃষ্টি করছে উল্লেখ করে তিনি এসব অপসারণের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

উদ্বোধনী পর্ব শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়।

প্রসঙ্গত, সবুজে ঘেরা এই রিসোর্টে রয়েছে একটি চাইনিজ রেস্তোরাঁ, শপিংমল, দুটি পরিবার থাকার মত অত্যাধুনিক প্রতিটি বিল্ডিং। এছাড়া রয়েছে চিত্তবিনোদনের শিশু পার্ক, ওয়াচ টাওয়ার, লেক সহ নানান সুযোগ সুবিধা।


[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর