কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে চক্ষু চিকিৎসায় প্রশংসা কুড়াচ্ছে দীন চক্ষু হাসপাতাল


 স্টাফ রিপোর্টার | ১৬ জুন ২০২১, বুধবার, ৮:৫৪ | স্বাস্থ্য 



কিশোরগঞ্জে আধুনিক, উন্নত ও মানসম্মত চক্ষু চিকিৎসা সেবা দেওয়ার মাধ্যমে রোগীদের আস্থা ও প্রশংসা কুড়াচ্ছে দীন চক্ষু হাসপাতাল। আধুনিক ও উন্নত মেশিনে ফ্যাকো সার্জারি, ছানি ও নেত্রনালি অপারেশনে নিয়মিত সফলতার সাক্ষর রাখছে হাসপাতালটি।

এর মাধ্যমে চক্ষু চিকিৎসা এবং অন্ধত্ব নিবারণে অবদান রাখছে দীন চক্ষু হাসপাতাল। সাস্প্রতিক সময়ে কিশোরগঞ্জ জেলাসহ পার্শ্ববর্তী এলাকাসমূহের মানুষের প্রতিকার যোগ্য অন্ধত্ব নিবারণ ও মান সম্পন্ন চক্ষু চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করছে।

দীন মোহাম্মদ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে কিশোরগঞ্জ শহরের গাইটাল পুকুরপাড় এলাকায় রাশিদ প্লাজার ২য় তলায় প্রতিষ্ঠিত এই হাসপাতালটি গত বছরের অক্টোবরে যাত্রা শুরু করে। এরপর থেকে হাসপাতালটি সমন্বিত চক্ষু সেবা কার্যক্রমের মাধ্যমে আধুনিক ও উন্নত সেবা প্রদান করছে।

এই সময়ের মধ্যেই হাসপাতালটি মানসম্মত সেবা প্রদানের মাধ্যমে রোগীদের আস্থা অর্জন করেছে।

দীন চক্ষু হাসপাতাল থেকে চক্ষু চিকিৎসা সেবা নেওয়া দরিদ্র ও অসহায়সহ সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ তাদের স্বস্তি ও সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

সরেজমিন হাসপাতালটি ঘুরে রোগী ও সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, একেবারে সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে গত ৮ জুন বিশিষ্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও ফ্যাকো সার্জন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক (চক্ষু) ডা. মো. হাবিবুর রহমান দীন চক্ষু হাসপাতালে ১৫ জন চক্ষু রোগীর ছানি অপারেশন করেন। অপারেশন করা সকল রোগীই সুস্থ রয়েছেন।

এছাড়া সর্বশেষ মঙ্গলবার (১৫ জুন) ডা. মো. হাবিবুর রহমান মোট ৪০ জন চক্ষু রোগীর চক্ষু অপারেশন করেন। এর মধ্যে ৫ জন চক্ষু রোগীর ফ্যাকো সার্জারি, ৫ জন চক্ষু রোগীর নেত্রনালি অপারেশন এবং ৩০ জন চক্ষু রোগীর ছানি অপারেশন করেন। সকল রোগীই ভালো রয়েছেন।

বেশ কয়েকজন রোগী জানান, হাসপাতালের চিকিৎসক ও স্টাফরা সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে যথেষ্ঠ আন্তরিক। এছাড়া ছানি অপারেশন ও অন্যান্য চক্ষু সেবার ক্ষেত্রে ব্যবস্থাপনাও ভালো। এসব কারণে হাসপাতালটি এখন চক্ষু রোগীদের অন্যতম ভরসাস্থলে পরিণত হয়েছে।

দীন চক্ষু হাসপাতালের পরিচালক মো. রফিকুল হক টিটু জানান, এখানে আধুনিক ও উন্নত মেশিনে ফ্যাকো সার্জারি, ছানি ও নেত্রনালি অপারেশনসহ প্রায় সব ধরনের চক্ষু রোগীর মানসম্মত চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। এছাড়া দরিদ্র, হতদরিদ্র ও অসহায় পরিবারগুলোর অপারেশন ও চিকিৎসার ক্ষেত্রে নানা ধরনের ছাড় রয়েছে।

রফিকুল হক টিটু বলেন, ব্যবসায়িক মনোভাব নয় সেবার মনোভাবে হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এখানে চক্ষু রোগীর চিকিৎসা ও অপারেশন নিয়মিত করা হয়ে থাকে। মানসম্মত, আধুনিক ও উন্নত চক্ষু সেবা দিতে আমরা সংকল্পবদ্ধ।


[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর