কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


সারগাম একাডেমি একতা নাট্য গোষ্ঠী ও অন্যান্য সংগঠন


 মু আ লতিফ | ১০ আগস্ট ২০১৯, শনিবার, ১১:৩৮ | সংস্কৃতি 


ওস্তাদ নৃত্যশিল্পী সন্দীপ রায়ের তত্ত্বাবধানে ১৯৯৪ সালের ১০ জুলাই সারগাম ললিতকলা একাডেমি প্রতিষ্ঠিত হয়। সংস্কৃতির শেকড় সন্ধানসহ দেশীয় সংস্কৃতির লালন ও প্রসারে সংগঠনটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে অনেক কাজ করেছে।

এ একাডেমিতে প্রশিক্ষণ নিয়ে ইতোমধ্যে বহু ছাত্র-ছাত্রী দেশে-বিদেশে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে যথেষ্ট সুনাম অর্জন করেছে।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি ও সারগাম ললিতকলা একাডেমির যৌথ উদ্যোগে পক্ষকালব্যাপী নৃত্য কর্মশালার আয়োজন এর এক উল্লেখযোগ্য দিক। এছাড়া ভারতের ডিডি সেভেন চ্যানেলে তাদের মঞ্চায়িত ময়মনসিংহ গীতিকার ‘মহুয়া’ গীতি নৃত্যনাট্যটি অন্তত তিনশ’ বারের বেশি প্রচারিত হয়েছে।

একতা নাট্য গোষ্ঠী মানস করের নেতৃত্বে ১৯৮৬ সালের ২২ আগস্ট গঠিত হয়। তাদের প্রথম প্রয়াস কল্যাণ মিত্রের ‘রাস্তার ছেলে’ মঞ্চায়ন।

ইতোমধ্যে এরা মোট ৬৫টি নাটকের প্রায় পাঁচশত প্রদর্শনী করেছে। মানস কর বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক দলের সদস্য হয়ে চীন ও মালয়েশিয়া সফর করেছেন।

নৃত্যনাট্য, আবৃত্তি ও নৃত্যানুষ্ঠান ছাড়াও সংগঠনটি নাটক ও নাচের উপর বিভিন্ন সময় কর্মশালার আয়োজন করে। এ সংগঠনটিকে উল্লেখযোগ্য ভূমিকার জন্য ঢাকা গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

এর সাথে জড়িত রয়েছেন রজিত ভৌমিক, শরদিন্দু বিশ্বাস, সফিকুল ইসলাস শামিম, ইনামুল হক সাগর, তানজিনা শাহরিন পাপড়ি, অপি, কণা, সাফাতসহ অনেকেই।

মানবাধিকার নাট্য পরিষদ গড়ে উঠেছে উদ্যমী সংগঠক হারুন আল-রশীদের তত্ত্বাবধানে। এরা কাজ করেন সর্বক্ষেত্রে মানবাধিকার-সংস্কৃতি চালু করার জন্য।

নারী-পুরুষের সাম্য প্রতিষ্ঠা, যৌতুক বিরোধিতা ও নারী শিক্ষার প্রসার এবং জনগণকে মানবিক অধিকার-সচেতন করা তাদের সংগঠনের মূল উদ্দেশ্য। তাদের মঞ্চায়িত নাটকগুলোর মধ্যে রয়েছে নবাবের বঙ্গে আছি কত রঙ্গে, অন্ধের দ্বন্দ্ব এবং বাঁধবেনীয়া অন্যতম।

এর সাথে আরো কাজ করছেন এএফএম আহাদ, হাফছা আফরিন বৃষ্টি, কবির উদ্দিন সোহেল, উম্মে আছমা নীপা, আসাদুজ্জামান আসাদ, ফজলে এলাহী রকি, সায়রা বানু উমাইয়াসহ অনেকে।

উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর বর্তমান সভাপতি হচ্ছেন এডভোকেট শেখ নুরুন্নবী বাদল এবং সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন আবদুল ওয়াহাব সরকার। সংগঠনটি ১৯৭৩ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে অদ্যাবধি সক্রিয় রয়েছে। গণসঙ্গীত, দেশাত্মবোধক গান ও লোকজ সংস্কৃতির চর্চা এ সংগঠনটির উলেখযোগ্য বিষয়।

‘ময়ুখ খেলাঘর আসর’ একটি ঐতিহ্যবাহী শিশু-কিশোর সংগঠন। ১৯৭৫ সালে এই সংগঠনটির জন্ম। শিশু-কিশোরদের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সক্রিয় করা ও তাদের প্রতিভার বিকাশে এ সংগঠনটির ঐতিহ্য রয়েছে।

বর্তমানে এখানে শিশু-কিশোরদের জন্য গান ও নাচের স্কুল চালু রয়েছে। বিশিষ্ট সাংবাদিক মরহুম আবু বকর সিদ্দিক হিরো এবং মরহুম আমিনুল হক চৌধুরী ফেরদৌস (এডভোকেট) একসময় এ সংগঠনটির নেতৃত্ব দিয়েছেন। বর্তমানে সভাপতি ও সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন যথাক্রমে ডা. আবদুল হাই ও গৌতম রায়। (চলবে)




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর